শুধু গেরুয়া পরলেই সাধু হয় না। সাধু হওয়ার জন্য প্রয়োজন অনেক ত্যাগ, কালি পূজার প্রাক্কালে এভাবেই মমতা ব্যানার্জি বিজেপি নেতাদের হিন্দুত্বর পাঠ দিলেন।

সোমবার সন্ধ্যায় দক্ষিণেশ্বরে কলকাতার প্রথম স্কাইওয়াক উদ্বোধন করে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী নিশানা করলেন আরএসএস-বিজেপিকেই।

‘গেরুয়া পরলেই সাধু হয় না। মনটা সাধুর মতো হওয়া চাই। গেরুয়া মানে ত্যাগ, তিতিক্ষা। এরা খায়, দায় ঘুরে বেড়ায়। আর ভাষণ দিয়ে বেড়ায়।  আসল সাধুসন্ত পাহাড়ে থেকে বনে থেকে তপস্যা করেন। লোভ কাজ করে না। এরা এনজয় করে বেড়াবে আবার গেরুয়া পরবে। একটা সত্যি গেরুয়া আর একটা ঝুটা,’ বলেন মমতা।

বিজেপিকে গেরুয়া ভেকধারী বলেও তোপ দাগলেন তিনি। মমতা বললেন, বিজেপি নকল গেরুয়া। ওরা শুধু ধর্ম-ধর্ম করে, ধর্মের জন্য কিছু করে না।

মমতার আজকের বক্তব্য ভারতের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। গতকাল ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে সাধুসন্ত দের এক সভা থেকে আসন্ন নির্বাচনে বিজেপিকে ভোট দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়।

সভার তরফ থেকে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে বলা হয় যে অযোধ্যার বিতর্কিত স্থানে রাম মন্দির তৈরি করার জন্য অধ্যাদেশ জারি করা হোক। এই দাবি মমতার ভালো লাগেনি, বলেন এক তৃণমূল নেতা।

তার মতে মমতা বিজেপির উগ্র হিন্দুত্বকে আক্রমণ করে উদার হিন্দুত্ব প্রচার করতে চাইছেন। ‘অযোধ্যার বিতর্কিত স্থানে কী হবে তা দেশের সুপ্রিম কোর্টের রায়ে নির্ধারিত হবে।  সাধুসন্তদের এই বিষয়ে রাজনৈতিক বিবৃতিতে দিদি বিরক্ত,’ বলেন ওই তৃণমূল নেতা।