বাংলাদেশ ডেস্ক: অভ্যুত্থানের শুরুতেই আর্থিকভাবে বড় ধরনের ধাক্কা খেল মিয়ানমার সেনাবাহিনী। সেনা নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠান মিয়ানমার ইকোনমিক হোল্ডিংসের সঙ্গে যৌথ বিনিয়োগ চুক্তি বাতিলের ঘোষণা দিলো জাপানি বিয়ার প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান কিরিন। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, এই সিদ্ধান্ত নেয়া ছাড়া তাদের হাতে আর কোনো বিকল্প নেই।

২০১৫ সালে মিয়ানমারে গণতান্ত্রিক সরকার গঠিত হওয়ায় দেশটিতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসে বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান। তারমধ্যে ছিলো জাপানি বিয়ার প্রস্ততকারক প্রতিষ্ঠান কিরিন হোল্ডিংস। সেনা নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠান মিয়ানমার ইকোনমিক হোল্ডিংস-এমইএইচ’র সাথে যৌথভাবে দেশটির বিয়ার প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান মিয়ানমার ব্রুওয়ারি লিমিটেড এবং ম্যান্ডলে ব্রুওয়ারি লিমিটেড এ বিনিয়োগ করে কিরিন। বর্তমানে এই দুই প্রতিষ্ঠানে অর্ধেকেরও বেশি মালিকানা রয়েছে কিরিনের হাতে।

তবে গেল সোমবার মিয়ানমারে সেনা অভ্যুথানের পর পাল্টে যায় দৃশ্যপট। রোহিঙ্গা গণহত্যা এবং সবশেষ অভুত্থানের ঘটনায় মিয়ানমারে ব্যবসা করা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের ওপর চাপ বাড়তে থাকে। এরই প্রেক্ষিতে সেনাপ্রধান মিন অং হ্লেইংয়ের নিয়ন্ত্রণে থাকা মিয়ানমার ইকোনমিক হোল্ডিংসের সাথে ব্যবসায়িক সম্পর্ক বাতিলের ঘোষণা দিল কিরিন। শুক্রবার এক বিবৃতিতে কিরিন জানায়, এ সিদ্ধান্ত কার্যকরে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।

এদিকে, কিরিনের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে মিয়ানমারের মানবাধিকার সংগঠনগুলো। শেষ পর্যন্ত মিয়ানমারের জনগণের কণ্ঠস্বর শুনে এমইএইচ’র সম্পর্ক ছিন্ন করায় কিরিন কতৃপক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে জাস্টিস ফর মিয়ানমার।

Previous articleকরোনায় বাড়ল মৃত্যু
Next articleপৌরসভা নির্বাচন: রায়পুরে সাংবাদিকদের সাথে বিএনপির প্রার্থীর মতবিনিময়
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।