বাংলাদেশ ডেস্ক: ভারতের উত্তরাখণ্ডের চামোলিতে হিমবাহ গলে প্রবল জলোচ্ছ্বাসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৬ জনে দাঁড়িয়েছে। রোববারের এ দুর্ঘটনায় এখনো নিখোঁজ দেড় শতাধিক। তাদের বেশিরভাগই মারা গেছেন বলে আশঙ্কা সংশ্লিষ্টদের। এদিকে দুর্ঘটনার দু’দিন পরও অভিযান অব্যাহত রেখেছেন উদ্ধারকারীরা।

নিখোঁজদের জীবিত উদ্ধারের আশায় দিনের পর ভারতের উত্তরাখণ্ডের চামোলিতে সোমবার রাতেও চলে উদ্ধার অভিযান। যে গুহাটির ভেতর সবচেয়ে বেশি মানুষ আটকা পড়েছিল, সেটি অনেকটাই পরিষ্কার করেছেন উদ্ধারকারীরা।

অভিযানের প্রথম দিকে কয়েকজনকে জীবিত উদ্ধার করা হলেও এখন সে সম্ভাবনা ক্রমেই ক্ষীণ হয়ে আসছে। সেইসঙ্গে প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে বেগ পেতে হচ্ছে উদ্ধারকারীদের।

‘মাঝেমধ্যেই জোয়ারের পানি গুহার ভেতর প্রবেশ করছে। এতে উদ্ধার অভিযান মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে।’

‘দিনের বড় একটা সময়ই আমরা কাজ করতে পারছি না। জোয়ারের পানির জন্য আমরা অনেক বেশি সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছি।’

সোমবার আবারো ঘটনাস্থল পারিদর্শন করে সামগ্রিক উদ্ধার অভিযান তদারকি করেছেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিভেনন্ড্রো সিং রাওয়াত। এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্থদের সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন।

‘প্রথমেই নিখোঁজদের উদ্ধারে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। এরপরই ক্ষতিগ্রস্ত অবকাঠামো নির্মাণের দিকে জোর দেওয়া হবে।’

আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

রোববার ভারতের উত্তরাখণ্ডে হিমবাহ গলে রাজ্যের চমোলি জেলায় প্রবল জলোচ্ছ্বাসের সৃষ্টি হয়। এতে বাঁধ ভেঙ্গে বিস্তৃর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। বহু মানুষের প্রাণহানির পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় বেশ কিছু অবকাঠামো।

Previous articleকরোনার নতুন ধরনকে প্রতিহতে সক্ষম ফাইজারের টিকা
Next articleপুলিশের ওপর হামলা: এলডিপির অলির ফোনোলাপ ফাঁস
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।