বাংলাদেশ ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভার ভোটে সহিংসতায় এ পর্যন্ত ১৩ জন তৃণমূল কর্মী নিহত হয়েছেন বলে দাবি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচনী সহিংসতার জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে দায়ী করে তার পদত্যাগ দাবি করেছেন তিনি। জবাবে, নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর মমতাকে বড় ধরণের বিদায় সংবর্ধনা দিতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন অমিত শাহ।

রাজ্যের শীতলকুচিতে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৫ কর্মী স্মরণে রোববার (১১ এপ্রিল) জলপাইগুড়িতে শোক মিছিল করেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এতে অংশ নেয় বহু মানুষ।

এরপর নির্বাচনী জনসভায় ভাষণ দেন মমতা। বাক্যবাণে তুলোধুনো করেন কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন বিজেপিকে। দাবি করেন, তৃণমূলকে কোণঠাসা করতেই নিরাপত্তা বাহিনীকে কাজে লাগাচ্ছে দলটি। এ সময়, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ’র পদত্যাগও দাবি করেন মমতা।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘আমার ১৩ জন তৃণমূলকর্মী মারা গিয়েছে। এই বিজেপিকে আমরা কেউ চাই না।’

তবে মমতার বক্তব্যের জবাব দিতে বেশি সময় নেননি অমিত শাহ। শিগগিরই মমতাকে ক্ষমতা ছাড়তে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। একইসঙ্গে মমতাকে বড় ধরনের সংবর্ধনা দেওয়ার জন্যও সাধারণ মানুষের প্রতি আহ্বান জানান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে তুমল বাকযুদ্ধের মধ্যেই সোমবার (১২ এপ্রিল) সকালে বারাসাতে মমতার পূর্বঘোষিত জনসভা বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন। তবে এর জন্য কোন কারণ উল্লেখ করা হয়নি।

এদিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি একাধিক নির্বাচনী বক্তব্যে মমতাকে কটাক্ষ করে পশ্চিমবঙ্গে ইভটিজিং বেড়ে গেছে বলে দাবি করেন। এর জেরে মোদির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে বেঙ্গল সিটিজেন ফোরাম নামের একটি সংগঠন।

Previous articleযুক্তরাষ্ট্রে আবারও পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ নিহত
Next articleআহমদ শফীর মৃত্যুর ঘটনায় বাবুনগরী-মামুনুলসহ ৪৩ জনকে অভিযুক্ত করে প্রতিবেদন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।