বাংলাদেশ ডেস্ক: ধর্মান্তরের খবর পেয়ে উত্তর প্রদেশ পুলিশ মৌ-পুলিশ সার্কেলের অন্তর্গত সহদাতপুরা কলোনির একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে সেখানে খ্রিস্টধর্ম গ্রহণের অভিযোগে ৫০ জনেরও বেশি লোককে আটক করেছে। অসুস্থদের চিকিৎসার জন্য রোববার প্রার্থনার নামে ‘ধর্মান্তরিত করার কর্মসূচি’ চালানো হচ্ছিল বলে অভিযোগ।

এখানকার পুলিশ জানিয়েছে, পাদ্রি আব্রাহাম গত পাঁচ বছর ধরে সাহাদতপুরা এলাকায় বিজেন্দ্র রাজভরের বাড়িতে প্রার্থনা সমাবেশের আয়োজন করছিলেন। সেখানকার প্রতিবেশীদের অভিযোগ, এই প্রার্থনা সমাবেশে অবৈধভাবে ধর্মান্তরিত করা হচ্ছে। হিন্দু জাগরণ মঞ্চের জেলা ইনচার্জ ভানু প্রতাপ সিং এবং অন্য কর্মীরা পুলিশকে জানিয়েছিলেন যে রাজভর বাড়িতে প্রার্থনার নামে মানুষকে প্রলোভন দেখিয়ে ধর্মান্তরিত করছেন। তিনি এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত। লোকেরা সেখানে যায়। কারণ তারা শুনেছে যে সেখানে গেলে রোগ নিরাময় হবে।

অভিযোগ, খ্রিস্টধর্মের অনুসারীরা নিরীহ গ্রামবাসীদের বিভ্রান্ত করছে এবং তাদের ধর্মান্তরিত করার জন্য প্ররোচিত করছে।

উপ-পুলিশ সুপার ধনঞ্জয় মিশ্র বলেন, প্রার্থনা সমাবেশের সময় বেশ কিছু লোককে আচার-অনুষ্ঠান এবং কথিত ধর্মান্তরকরণের বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সেখানে কয়েকজন খ্রিস্টান মিশনারির সদস্য এবং কয়েকজন প্রথমবারের মতো দর্শনার্থী ছিলেন। ধনঞ্জয় মিশ্র জানান, তদন্ত চলছে এবং জোরপূর্বক ধর্মান্তরিত করা হয়েছে বলে প্রমাণ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
সূত্র : পুবের কলম

Previous articleছেলে বিরুদ্ধে ধর্ষণ অভিযোগ, পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করায় বাবা গ্রেফতার
Next articleচাটমোহরে শিক্ষক ছেলে লাথি মারলেন বৃদ্ধ বাবাকে, ছবি ভাইরাল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।