বাংলাদেশ ডেস্ক: পারিবারিক অশান্তির জেরে তিন সন্তানকে নিয়ে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন রেবিনা খাতুন নামের এক নারী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের সাগরদীঘি থানার কাবিলপুর এলাকায়।

শুক্রবার দুপুরের দিকে নদীর পাড় থেকে ওই নারীর এক মেয়েশিশুর লাশ উদ্ধার হলেও এখনো নিখোঁজ রয়েছেন মা ও তার দুই ছেলে সন্তান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকদের সাথে অশান্তির পর কাবিলপুরের বাসিন্দা রেবিনা খাতুন (২৬) সকালে তার তিন সন্তানকে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। পরে দুপুরে ভাগীরথী নদীর তীর থেকে রেবিনার একমাত্র মেয়ে খাদিজা খাতুনের (৪) লাশ উদ্ধার হয়।

সাগরদীঘি থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে গেছে। নিখোঁজ দুই ছেলের বয়স ৬ বছর ও ২৭ দিন। নিখোঁজ মা ও শিশুদের সন্ধানে তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ। তবে গোটা বিষয়টি নিয়ে এখনো থানায় কোনো অভিযোগ দেয়া হয়নি।

আজিজুর রহমান নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, ‘শুনেছি ওই মহিলা সকাল ১০টার দিকে নিজের তিন ছেলেমেয়েকে নিয়ে ব্যাঙ্কের কিছু জরুরি কাজের জন্য বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। কিন্তু আর বাড়ি ফিরে আসেননি। পরে স্থানীয় কিছু গ্রামবাসী নদীতে একটি বাচ্চার দেহ ভেসে যেতে দেখে সেটি পাড়ে তুলে আনেন। এরপর গ্রামের কিছু ছেলে ফেসবুকে ওই বাচ্চাটির পরিচয় জানার জন্য লাইভ করা শুরু করে। তখন বাচ্চাটির নাম খাদিজা খাতুন বলে জানা যায়। বাচ্চাটি তার মা ও দুই ভাইয়ের সাথে বাড়ি বের হয়েছিল।

আজমাইল শেখ নামে নিখোঁজ ওই মহিলার এক দাদু বলেন, ‘রেবিনার স্বামী অন্য রাজ্যে রাজমিস্ত্রির কাজ করে। মাত্র ১৭ দিন আগে সে বাড়ি ফিরেছে। বাড়িতে আসার পর থেকে সে ও তার বাবা মা রেবিনার ওপর নির্যাতন শুরু করে। তবে রেবিনার শ্বশুর-শাশুড়ি প্রায়ই তার ওপর নির্যাতন করতেন। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরেই তিন সন্তানকে নিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে সে।’

তিনি জানান, ‘সকালে রেবিনা নদীতে তিন সন্তানকে নিয়ে ঝাঁপ দিলেও বিকেল পর্যন্ত রেবিনা ও তার দুই ছেলের সন্ধান পাওয়া যায়নি।’

এদিকে নিখোঁজদের সন্ধানে তল্লাশি অব্যাহত রেখেছে পুলিশ ও ডুবুরিরা।

কাবিলপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য আব্দুল বারিক বলেন, ‘গতকাল রাতে রেবিনা বাবার বাড়ি থেকে তিন সন্তানকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি ফিরে এসেছিল। কিন্তু তাকে রাতে ওই বাড়িতে ঢুকতে দেয়া হয়নি। ফলে তিনি শ্বশুরবাড়ির সামনে একটি গাছের তলায় তিন সন্তানকে নিয়ে সারারাত কাটান। শুনেছি আজ সকালে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকদের সাথে অশান্তির পর রেবিনা গ্রাম থেকে বের হয়ে এসে নদীতে তিন সন্তানকে নিয়ে ঝাঁপ দেয়।’

Previous articleচূড়ান্ত ফলাফলেও গড়মিল: ডিমলায় নির্বাচন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতাসহ নানা অভিযোগ
Next articleঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।