বাংলাদেশ ডেস্ক: চেক রিপাবলিকের একজন লোকগানের শিল্পী ইচ্ছাকৃত কোভিড সংক্রমিত হয়ে মারা গেছেন। তার ছেলে বিবিসিকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

৫৭ বছর বয়সী হানা হোরকা টিকাও নেননি। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি দিয়ে লিখেছেন যে তিনি সুস্থ হয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু এর দুই দিন পরেই তিনি মারা যান।

ছেলে জ্যান রেক বলেছেন, তিনি এবং তার বাবা করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হওয়ার পর তার মা ইচ্ছাকৃত সংক্রমিত হয়েছিলেন, যাতে তিনি সুস্থ হওয়ার পর বিভিন্ন জায়গায় তার যাতায়াতে সহজ হয়।

বুধবার চেক রিপাবলিকে রেকর্ড সংখ্যক রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এই সংগীত শিল্পীর স্বামী ও সন্তান টিকা গ্রহণ করেছেন এবং ক্রিসমাসের সময় তারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

রেক জানান, তার মা তখন দূরত্ব বজায় না রেখে ইচ্ছাকৃতভাবে তাদের সংস্পর্শে এসেছেন।

‘তিনি নিজেকে সপ্তাহ খানেকের জন্য আলাদা রাখতে পারতেন। কিন্তু সেটি না করে তিনি সারাক্ষণ আমাদের সাথে ছিলেন,’ বলেন রেক।

চেক রিপাবলিকে সিনেমা হলে, বার এবং ক্যাফেসহ বিভিন্ন জায়গায় ঢুকতে হলে টিকা সনদ দেখাতে হয়। যদি সেটি না থাকে, তাহলে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার প্রমাণ দেখাতে হবে।

রেক বলেন, তার মা চেক রিপাবলিকের অন্যতম পুরনো একটি লোকগান দলের সদস্য। তিনি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হতে চেয়েছিলেন, যাতে বিভিন্ন জায়গায় যাওয়ার ক্ষেত্রে তার বিধি-নিষেধ কম থাকে।

মারা যাবার দুদিন আগে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, ‘আমি সুস্থ হয়ে যাচ্ছি। এখন থিয়েটার হবে, কনসার্ট হবে।’

কিন্তু রোববার রাতে তিনি মারা যান। বাইরে হাঁটতে যাওয়ার জন্য তিনি যখন তৈরি হচ্ছিলেন তখন আকস্মিকভাবে তার পিঠে ব্যথা শুরু হয়। একপর্যায়ে তিনি বেডরুমে শুয়ে পড়েন।

‘মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যে সব শেষ হয়ে গেল। তিনি মারা গেলেন,’ বলেন রেক।

তিনি টিকা না নিলেও কোভিড-১৯ টিকাকে কেন্দ্র করে যেসব অদ্ভুত গুজব তৈরি হয়েছিল, সেগুলো তিনি বিশ্বাস করতেন না।

‘তিনি মনে করতেন টিকা নেয়ার চেয়ে আক্রান্ত হয়ে যাওয়া ভালো,’ বলেন সংগীত শিল্পীর ছেলে জন র‍্যাক।

চেক রিপাবলিকের ৬৩ শতাংশ মানুষ টিকা গ্রহণ করেছেন। তবে ইউরোপের অন্যান্য দেশে গড়ে ৬৯ শতাংশ মানুষ টিকা নিয়েছে।

সূত্র : বিবিসি

Previous articleবিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্য ‘দুবাই’
Next articleসামরিক-অসামরিক প্রশাসনকে একসাথে কাজ করতে হবে: সেনাপ্রধান
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।