বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যা মামলায় আদালতের প্রতি অনাস্থা জানানোয় আসামিপক্ষকে ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে হাইকোর্টের আদেশ আনার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের ১ এর বিচারক আবু জাফর মোহাম্মদ কামরুজ্জামান এ আদেশ দেন।

বিচার বিলম্বিত হওয়ায় ছেলে হত্যার ন্যায় বিচার নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের বাবা বরকত উল্লাহ। আদালত থেকে বেরিয়ে এমন শঙ্কার কথা বলেন তিনি।

ফাহাদের বাবা বলেন, ইচ্ছা করে তারা সময়ক্ষেপণ করছে। আমি চাই দ্রুত বিচার শেষ হোক।

আসামিপক্ষের আইনজীবীরা জানান, মামলার বিচারক পরিবর্তন করতে ২২ ডিসেম্বরের আগেই উচ্চ আদালতে আবেদন করা হবে।

তারা বলেন, উভয়পক্ষের শুনানি হবে, আমরা যদি রাজি থাকি উচ্চ আদালতে যাবো, এমন অনেক প্রক্রিয়া আছে। কিন্তু কিছু না করেই সাক্ষী নিয়ে নেওয়া হলো। এসব কারণেই আমরা মনে করছি, আমরা ন্যায়বিচার পাবো না। এ কারণেই আমরা উচ্চ আদালতে যাবো।

রাষ্ট্রপক্ষের দাবি, বিচারিক কার্যক্রমকে বিলম্বিত করতেই আসামিপক্ষের আইনজীবীরা এমন কৌশল নিয়েছেন।

৩ ডিসেম্বর বিচারকের নিরপেক্ষতার অভিযোগ তুলে আদালতে অনাস্থা দেন ২২ আসামির আইনজীবীরা। এ বিষয়ে শুনানি শেষে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত আবরার হত্যা মামলার বিচার কার্যক্রম স্থগিত করেন আদালত।