একটি অসম্পূর্ণ উপন্যাস : আমেনা ফাহিম
একটি অসম্পূর্ণ উপন্যাস
-আমেনা ফাহিমএখন আমি খুব ব্যস্ত থাকি
একটু বেশি ব্যস্ত থাকি
যে সময়টুকু সযত্নে নিজের জন্য তুলে রাখতাম
সে সময়টুকুর এখন আর প্রয়োজন হয়না
সারাটাদিন ছোট-বড় নানা কাজে নিজেকে জড়িয়ে রাখি
তোমাকে ভুলে থাকার অজুহাতে।

আজকাল কবিতা ও লেখা হয়না জানো!
যখনি লিখবো ভাবি কলমের কালি ফুরিয়ে যায়
চোখের জলে ভিজে যায় কবিতার খাতা
কিছু অব্যক্ত কথামালা হয়তো আর কখনই লেখা হবেনা
তোমাকে ভুলে থাকার অজুহাতে।

সব গল্পের কি সমাপ্তি হয়?
সব চোখে কি অশ্রু ঝড়ে?
প্রশ্নগুলো সাবলীল,  উত্তরগুলো ও সাধারন
তবুও জীবনের হিসেবটা অসম্পুর্ন রয়ে গেলো
তোমাকে ভুলে থাকার অজুহাতে।

যদি পিছু ডাকো? ফেরা আর হবেনা
পৃথিবী যা কিছু নিয়ে যায় তা আর ফিরিয়ে দেয়না
সেই পৃথিবীর কোনো এক ব্যস্ত নগরীতে
হয়তো নতুন কোনো স্বপ্ন সাঁজাবো
নতুন কোনো গল্পের অধ্যায় ঠিক খুঁজে নিবো
তোমাকে ভুলে থাকার অজুহাতে।

জন্ম আর মৃত্যুতে পার্থক্য খুব সহজাত
দুটোই অবধারিত নিয়তির বিধান
মধ্যেকার জীবনের সময়টুকু দিন-রাত্রির মতই
সেই জীবনের পুর্নতা ছিলে তুমি
আর তুমিহীন একটা অসম্পুর্ন উপন্যাস
আজ উপন্যাসের মৃত্যু হয়েছে কিছু সরল সমাধানে
তোমাকে ভুলে থাকার অজুহাতে।