লক্ষ্মীপুরে বর্ণাঢ্য আয়োজনে দিনব্যাপী পিঠা উৎসব

তাবারক হোসেন আজাদ: তরুণ প্রজন্মকে বিভিন্ন অপরাধ থেকে বিরত রাখতে ও গ্রামবাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে লক্ষ্মীপুরে আয়োজন করা হয়েছে দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য আয়োজনে পিঠা উৎসব। শনিবার সকালে শহরের বাগবাড়ী ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের উদ্যোগে ক্যাম্পাস মাঠে উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ কে এম সালাহ উদ্দিন টিপু। নতুন প্রজন্মের সাথে দেশীয় পিঠার পরিচয় করিয়ে দিতে এমন আয়োজন বলে জানান আয়োজকরা। শতাধিক স্টল নিয়ে বিভিন্ন পিঠার পসরা সাজিয়ে বসেছে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। এ উৎসবে ভীড় জমান বিভিন্ন শ্রেনি পেশার মানুষ। কুয়াশায় ডাকা সকালে কিংবা সন্ধ্যায় হিমেল বাতাসে মুখরোচক পিঠার স্বাদ নেওয়া ভোজন বিলাসী বাঙালির ঐতিহ্যের অংশ। এই মাঘের হিম হিম ঠাণ্ডায় লক্ষ্মীপুর ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ ক্যাম্পাস মাঠে শুরু হয় এই পিঠাপুলির উৎসব। শতাধিক স্টলে প্রায় দুই শতাধিক গ্রাম বাংলার বিভিন্ন পিঠার পসরা সাজিয়ে বসেছে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। পিঠা উৎসবে স্থান পেয়েছে জিরা পিঠা, ভাপা, নকশি, চিতই, পাঠিসাপটা, জামাই বরণ পিঠা, ডাল ও তালের পিঠাসহ দুই শতাধিক পিঠার সমারাহ। উৎসবে ভীড় জমান জেলার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। অনেকেই মেতেছিল উৎসবে। কেউ কিনছেন, কেউ খাচ্ছেন। আবার কেউবা নিয়ে যাচ্ছেন প্রিয়জনের জন্য। পিঠা পুলির এ আয়োজনটি তরুণ প্রজন্মকে আকর্ষণ করে। পাশপাশি বিভিন্ন ধরনের পিঠা তৈরি করে স্টলে বিক্রি করার মাঝেই আনন্দ তাদের। এতে তরুণরা বিভিন্ন পিঠার সাথের পরিচয় হতে পারছে। ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের উপাধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান সবুজ জানান, গ্রাম বাংলার মানুষের চিত্ত বিনোদন ও নির্মল আনন্দ উপভোগের জন্য বছরের অধিকাংশ সময় আয়োজন করা হত বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানের। এখন আর এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় না। পিঠা উৎসবের মাধ্যমে গ্রাম বাংলার সেই হারানো ঐতিহ্য আবারও শহরে ফিরে আসবে এমনটিই মনে করেন আয়োজকরা।