কীটনাশক মুক্ত বি.টি.৪ জাতের বেগুন ও টমেটো চাষ করে এলাকায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন কৃষক গোপাল মহন্ত

প্রদীপ অধিকারী: জয়পুরহাট জেলার পুরানাপৈল ইউনিয়নের পারবাট্টা গ্রামের কৃষক গোপাল মহন্ত নিজ উদ্যোগে তার ফসলী জমিতে কীটনাশক মুক্ত বি.টি.৪ জাতের বেগুন এবং বাহুবলী জাতের টমেটো চাষ করে এলাকায় যেমন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তেমনি এ দুটি ফসল বিক্রয় করে লাভের স্বপ্ন নিয়ে জমিতে শ্রম দিয়েই চলছেন। গত ২৫ শে জানুয়ারী সরজমিনে পারবাট্টা গ্রামে তার চাষ কৃত বিটি৪ ও বাহুবলী জাতের টমেটো চাষ দেখতে গিয়ে কথা হয় দৈঃ ডেল্টা টাইমস এর প্রতিবেদকের সঙ্গে। কৃষক গোপাল মহন্ত জানায় আমি দীর্ঘ্য ৩০/৪০ বৎসর ধরে কৃষি কাজ জরিত নিজ বাড়ীর পাশেই ৩৩ শতাংশ জমিতে এবং বাড়ীর অন্য পাশে দেড় বিঘা জমিতে বিভিন্ন ধরনের ফসল উৎপাদন করে আসছি। এবারেই প্রথম আমার নিজ চিন্তা চেতনায় বাড়ীর পাশে ৩৩ শতাংশ জমিতে বিটি৪ নামক জাতের বেগুন চাষ করেছি যা একটি বেগুনের ওজন ১ কেজি থেকে সর্বনিম্ন ৫০০ গ্রাম হয় বর্তমানে সামান্য পরিমান জমি থেকে বেগুন তোলা হচ্ছে যা বাজারে বিক্রয় হচ্ছে ১ হাজার টাকা মণ ফাল্গুন মাসে বেগুন গাছ গুলোতে পরিপূর্ন ভাবে বেগুন ধরবে তখন বেগুনের মূল্য ভাল থাকলে কিছুটা লাভবান হওয়ার আশা রাখি এবং এ পর্যন্ত ১২ হাজার টাকার বেগুন জমি থেকে তুলে বিক্রয় করেছি। কৃষক গোপাল মহন্ত আরো জানায় হালচাষ, সার প্রয়োগ, পানি সেচ, ও বীজ ক্রয় সহ খরচ হয়েছে ১৫ হাজার টাকা বেগুন ও টমেটো চাষ করছি সম্পূর্ন কীটনাশক মুক্ত ভাবে একই চিন্তা ভাবনা এবার বাড়ীর বাহিরে রেল লাইনের পাশে প্রায় দেড় বিঘা জেিমত গোপাল মহন্ত চাষ করেছে বাহুবলী নামক জাতের টমেটো এখানেও কীটনাশক মুক্ত খরচ পরেছে ১৫ হাজার টাকা এ পর্যন্ত প্রায় ১৫/২০ হাজার টাকার টমেটো বিক্রয় করেছে জমিতে গিয়ে দেখা যায় আরো প্রচুর পরিমান টমেটো গাছে রয়েছে, বর্তমান টমেটোর দাম কৃষকের অনুকূলে থাকায় টমেটো থেকেও লাভের আশা আছে। পূরানা পৈল ইউনিয়নের ব্লক সুপার ইনসান আলী আমার ফসলী জমিতে এসে দেখেন পরামর্শ দেন। কৃষক গোপাল মহন্ত পরিশেষে জানান বেগুন টি খেতে খুবই সুস্বাদু কিন্ত পাখির অত্যাচারের জন্য জমিতে অনেক বেগুন নষ্ট হয়ে যাচ্ছে ।