২০২৩-২৪ অর্থবছরে ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি উন্নীত করাই লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

২০২৩-২৪ অর্থবছরে ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি উন্নীত করাই লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

কাগজ প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ২০২৩-২৪ অর্থবছরে ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি উন্নীত করা সরকারের লক্ষ্য; এসডিজি বাস্তবায়ন ও সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা সামনে রেখে বাজেট প্রণয়ন করা হয়েছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে এটাই সর্ববৃহৎ বাজেট জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের সরকারের বিগত দুই মেয়াদে ১০ বছরের যে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে তার মাধ্যমে জনগণের মাঝে আমাদের প্রতি আস্থা বেড়েছে। তার প্রতিফলন ঘটেছে গত ৩০ ডিসেম্বর সাধারণ নির্বাচনে।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুক্রবার বিকেলে আয়োজিত ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

দেশের বেকার যুবসমাজের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে সরকারের লক্ষ্যমাত্রার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে ৩ কোটি যুবকের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে। সে লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার।

কৃষিখাতে সরকারের ভর্তুকি-প্রণোদনা অব্যাহত থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, বিভিন্ন ফসলের উৎপাদন বাড়াতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ ও প্রণোদনা থাকবে। কৃষি ভুর্তকি, ঋণ ও কৃষিপণ্য রফতানির ক্ষেত্রে প্রণোদনাও থাকবে।

রীতি অনুযায়ী প্রতিবার বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন অর্থমন্ত্রী। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল অসুস্থ হওয়ায় এবার প্রথমবারের মতো কোনো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলন করছেন শেখ হাসিনা। এর আগে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রীর হয়ে বাজেটের বক্তৃতার একাংশ পড়ে দেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা।

কয়েক দিন ধরেই অসুস্থ অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। অর্থমন্ত্রী হিসেবে তার প্রথম বাজেট বক্তব্যের শুরু থেকেই তিনি ছিলেন অস্বস্তিতে। এরই এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী নিজেই স্পিকারের অনুমতি নিয়ে বাজেট বক্তৃতার বাকি অংশ পড়া শুরু করেন। তবে বাজেটের পুরো বক্তব্য পাঠ করা হয়নি। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বাকি অংশ পঠিত বলে গণ্য করার ঘোষণা দিয়েছেন।

অর্থমন্ত্রী বৃহস্পতিবার হাসপাতাল থেকে সরাসরি সংসদের অধিবেশনে অংশ নেন। পরে সংসদ থেকে বেরিয়ে আবার হাসপাতালে চলে যান। সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এর আগে দেশে ১২ জন বাজেট উপস্থাপন করেছেন। অর্থমন্ত্রীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাজেট বক্তব্য পড়ে দেওয়ার ঘটনা এবারই প্রথম। সংসদের কার্যক্রমে যে কোনো মন্ত্রণালয়ের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা।

‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ: সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শীর্ষক এবারের বাজেটের আকার ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা।