ভারতে ইলিশ রপ্তানির বিশেষ অনুমতি

বাংলাদেশ ডেস্ক: প্রায় দেড় হাজার টন ইলিশ আগামী সপ্তাহে বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশের প্রস্তুতি নিচ্ছে। ব্যবসায়ীদের ইলিশ রপ্তানির বিশেষ অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ। ২০১২ সাল থেকে ভারতে ইলিশ রপ্তানি নিষিদ্ধ থাকলেও এবার রপ্তানির বিশেষ অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে ভারতে ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন মাছ আমদানিকারক সমিতির সেক্রেটারি সৈয়দ আনোয়ার মকসুদ। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে প্রায় ২০০ মাছ রপ্তানিকারক ভারতে মাছ রপ্তানির জন্য সরকারের কাছে অনুমতি চেয়েছিল। এর মধ্যে কেবল ৯ জনকে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ১৪৫০ টন ইলিশ আগামী সপ্তাহের মধ্যেই কলকাতায় অবতরণ করবে। এটি বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে পশ্চিমবঙ্গে প্রবেশ করবে। বাংলাদেশ থেকে যে ইলিশ ভারতে যাবে তা ৮শ গ্রাম থেকে ১২শ গ্রামের হবে। আকারের ওপর নির্ভর করে ইলিশের পাইকারি দাম প্রতি কেজি আটশ থেকে ১৪শ টাকা হবে।’

দেশের চাহিদা মেটাতে ২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশ সরকার ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ রেখেছে। তবে গত বছর পূজার সময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পশ্চিমবঙ্গে ৫০০ টন ইলিশ রপ্তানির ব্যবস্থা করেছিলেন।

তবে ব্যবসায়ীদের মতে, রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও প্রতিবছর মৌসুমে হাজার হাজার টন ইলিশ চোরাই পথে পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতে পাচার হতো। সে কারণে ইলিশের বাজার মৌসুমেও চাঙ্গা থাকত। গত এক সপ্তাহ ধরে স্থল সীমান্ত দিয়ে ভারতে ইলিশ ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

পশ্চিমবঙ্গের ভোজন রসিকেরা গঙ্গার ইলিশেই স্বাদ মেটাচ্ছেন। গত দুই বছরে সেভাবে ইলিশ জালে পড়েনি। এ বছর প্রচুর ইলিশ ওঠার সম্ভাবনার কথা জানিয়েছিলেন মৎস্যজীবীরা। কিন্তু এখনও পর্যন্ত হতাশ ক্রেতা-বিক্রেতারা। খবর: দ্য ইকোনমিক টাইমস

Previous articleইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছি: এসপি
Next articleঈশ্বরদীর বিশিষ্ট হেমিও চিকিৎসক জহর বাগচি আর নেই
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।