জয়নাল আবেদীন: জাতীয় পার্টি ৩১ বছর ক্ষমতার বাহিরে থাকলেও এখনো অনেক শক্তিশালী একটি দল।

জিএম কাদের বলেন, কোন কারণ ছাড়াই জিনিসপত্রের দামের ঊর্ধ্বগতির কোনো সীমা নেই। সব কিছুর দাম বাড়ানো হচ্ছে। মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। এখন সবকিছুই অনিরাপদ ও ঝুঁকিপূর্ণ। মানুষের জীবনের কোনো নিরাপত্তা নেই। ঘর থেকে বের হলে দুর্ঘটনা ঘটছে। মানুষের ইজ্জতের কোনো মূল্য নেই। বেকার সমস্যার কারণে মাদক কারবারি বাড়ছে। কোটি কোটি মানুষ মাদকের দিকে চলে যাচ্ছে। এটা আগামী প্রজন্মের জন্য ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। কাদেও বলেন দেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের স্বার্থেই নতুন আইনের প্রয়োজন রয়েছে । সংবিধানের ১১৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন। তবে সেটি হতে হবে আইনের বিধান সাপেক্ষে। কিন্তু সেই আইনটি এখন পর্যন্ত করা হয়নি। আমরা রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে নতুন আইন করার গুরুত্ব তুলে ধরেছি। আমরা চাই গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন এবং অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য আইনটি দ্রæত হোক।

তত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা প্রসঙ্গে জিএম কাদের বলেন, অনেকেই বিভিন্ন সময় তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি করেছেন। আমরা সংলাপে রাষ্ট্রপতিকে নতুন আইনের মাধ্যমে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিদের নিয়ে নির্বাচনকালীন এ ধরণের সরকার ব্যবস্থা করার ব্যাপারেও মতামত জানিয়েছি। তিনি আক্ষেপ করে বলেন বর্তমান নির্বাচন কমিশন নির্বাহী বিভাগকে কাজে লাগাতে পারছে না। অথচ সংবিধানের ১২৬ ধারা অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নির্বাহী বিভাগ নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে নির্বাচন কমিশনকে সহযোগিতা করবে। কিন্তু বাস্তব চিত্র উল্টো। নির্বাচন কমিশন নির্দেশ দিলেও নির্বাহী বিভাগ তা পালন করছেন না। তিনি বলেন মহামান্য রাষ্ট্রপতি নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন। তবে সংবিধানের ৪৮ ধারা অনুচ্ছেদের ৩ উপধারা মোতাবেক দুটি কাজ ছাড়া সমস্ত কাজের জন্য রাষ্ট্রপতিকে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ মোতাবেক করার বিধান রয়েছে। এই কারণে যদি নতুন কোনো আইন না হয়, তাহলে রাষ্ট্রপতিকে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শক্রমে নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে। আর এটা হলে কারো কাছেই সেই নির্বাচন কমিশন গ্রহণযোগ্যতা পাবে না। শুধু তাই নয় নির্বাচনও গ্রহণযোগ্য হবার সম্ভাবনা অনেক কম থাকবে।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সরকার ও সরকারি দল যদি মনে করে নির্বাচনে অংশ নিয়ে জাতীয় পার্টি বড় অপরাধ করেছে, তাহলে ভবিষ্যতে এই বিষয়টি নিয়েও আমাদের চিন্তা-ভাবনা করতে হবে। এ সময় রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা সহ স্থানীয় জাপানেতৃ বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন । এর আগে

তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে দর্শনার পল্লীনিবাসে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ও জাপার জনক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও দোয়া করেন করেন।

Previous articleমনোয়ননপত্র জমা দেওয়ার দিন মারা গেলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী
Next articleটাঙ্গাইলে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ ও ছবি তুলে নারীকে ব্ল্যাকমেইল, আটক ১
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।