আবুল কালাম আজাদ: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ ও ছবি তুলে এক নারীকে ব্ল্যাকমেইল করে একাধিকবার ধর্ষণ ও টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে লুৎফর রহমান (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে র‌্যাব।

সোমবার ১০ জানুয়ারি রাতে উপজেলার পাকুল্লা এলাকা থেকে তাকে ব্যক্তিকে আটক করা হয়।আটককৃত লুৎফুর রহমান উপজেলার ছিতেশ্বরী গ্রামের মইনুল হকের ছেলে। তিনি একটি প্রাইভেট ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি করেন।

মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারি দুপুরে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১২ এর সিপিসি-৩-এর টাঙ্গাইলের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন এ তথ্য জানান।

র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার জানান, লুৎফর রহমান একটি প্রাইভেট ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি করেন। চাকরির সুবাদে তিনি এক নারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। পরে লুৎফর ওই নারীকে ধর্ষণ করে এবং গোপনে ভিডিও ও ছবি ধারণ করে। পরবর্তীতে লুৎফর ভিকটিমকে ব্ল্যাকমেইল করে ভিডিও ও ছবি প্রকাশের ভয় দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করে আসছিল। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে ভিকটিমের নিকট থেকে প্রায় ২০ লাখ টাকা ও ১৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার হাতিয়ে নেন। লুৎফর সব সময় ভিকটিমকে মানসিক চাপে রাখতো। এ অবস্থায় ওই নারী নিরুপায় হয়ে সম্প্রতি টাঙ্গাইল র‌্যাব অফিসে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। পরে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। এরপর অভিযুক্তকে গ্রেফতারে অভিযান চালানো হয়।

সোমবার রাতে অভিযুক্ত লুৎফরকে আটক করা হয়। এ সময় ধারণকৃত ভিডিওসহ মোবাইলফোন ও ল্যাপটপ জব্দ করা হয়। অভিযুক্ত লুৎফরের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন এবং পর্নোগ্রাফি আইনে মির্জাপুর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

Previous articleজাতীয় পার্টি ৩১ বছর ক্ষমতার বাহিরে থাকলেও এখনো অনেক শক্তিশালী: জিএম কাদের
Next articleটাঙ্গুয়ার হাওরে অবৈধ ভাবে মাছ ধরার সরঞ্জাম আটক, আগুন পুড়ে ধ্বংস
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।