বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, শিক্ষার্থীরা আমাদের সন্তান, আমরা তাদের ছেড়ে যেতে পারি না। আমরা তাদের মঙ্গল চাই। সুতরাং শাবি’র বিষয়ে মুখোমুখি না হয়ে, আলোচনা করে সমাধান করা উচিত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেট নগরীর পাঠানটুলায় এলাকায় একটি অনুষ্ঠান শেষে মন্ত্রী শাবিপ্রবি প্রসঙ্গে গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, প্রতিক্রিয়াশীলরা বাংলাদেশকে নিজের দেশ মনে করে না। তাদের ধারণা, বাংলাদেশ থেকে অন্যদেশ আরো উত্তম। কেউ কেউ অন্যদেশকে স্বর্গ মনে করে। প্রতিক্রিয়াশীলদের মোকাবিলা করার ক্ষমতা আওয়ামী লীগের রয়েছে।

মন্ত্রী আরো বলেন, প্রতিক্রিয়াশীল ছাড়া ও আধা প্রতিক্রিয়াশীল সুবিধাবাদী কিছু চক্র আছে যারা নানাভাবে ঘোলাটে পরিবেশে মাছ শিকার করতে চায়। মানে যেকোনো কিছুর বিনিময়ে তারা ক্ষমতায় যাওয়ার পথ খুঁজছেন। তবে আমি উন্নয়নে বিশ্বাসী, উন্নয়ন আমার শখ ও অভিলাশ। এসময় সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) যে ঘটনা ঘটেছে তার জন্য আমি খুবই দুঃখিত।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মণি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সস্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলকে আলোচনার জন্য পাঠিয়েছেন। দল থেকে উচ্চ পর্যায়ে প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক খোঁজ খবর নিচ্ছেন। এই আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীও বিষয়টি সমাধানে খুবই আন্তরিক।

তিনি সবার সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে সমাধানের প্রত্যাশা ব্যাক্ত করে বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বয়স খুবই কম, একটু উত্তেজনা থাকতেই পারে, তবে সেটা ধৈর্য্যের সঙ্গে মোকাবিলা করতে তিনি আহবান জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা আঞ্জুমান আরা অঞ্জু প্রমুখ।

Previous articleদেশে প্রথমবার এলো জনসনের টিকা
Next articleইরানের জন্য হেলমান্দ নদীর পানি ছেড়ে দিল তালেবান সরকার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।