সাহারুল হক সাচ্চু: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় একটি ইট ভাটার কারনে ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে এলাকার কৃষকসহ বিভিন্ন পেশার দুই শতাধিক ব্যক্তি লিখিত অভিযােগ করেছেন। উল্লাপাড়া উপজেলার বড়হর ইউনিয়নের পাগলা উত্তরপাড়া
গ্রামের পাশে ফসলী জমির উপর প্রায় পাচ বছর ধরে চালু ইটভাটার কারনে এলাকার প্রায় ৩’শ বিঘা জমির
বিভিন্ন ফসল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এর পাশাপাশি রাণীনগর কবরস্থান থেকে পাগলা উত্তরপাড়া জামে মসজিদ
পর্যন্ত পাকা রাস্তাটি ইটবাহী ট্রাক যাতায়াতের কারণে নষ্ট হয়ে গেছে বলে অভিযােগ করা হয়েছে। কৃষি
মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব বরাবর এলাকার কৃষকসহ বিভিন্ন পেশার দুই শতাধিক ব্যক্তির স্বাক্ষরিত
অভিযােগ পত্রে বলা হয়েছে, পাগলা উত্তরপাড়ার বাসিন্দা হাতেম আলীর ছেলে আরিফুল ইসলাম জিন্নাহ
পরিবেশ আইন অমান্য করে তাদের ফসলী জমির মাঝখানে মেসার্স তাজ ব্রিকস্ নামের এই ইটভাটাটি স্থাপন
করেন। বিগত কয়েক বছর ভাটার বিষাক্ত ধেয়াা ও তাপে তাদের বিভিন্ন ফসল নষ্ট হয়ে আসছে। সেই সাথে
মাঠের পাশের ফলজ বাগানগুলাে ক্ষতি হচ্ছে । আবেদনের একটি কপি উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের
কাছে জমা দিয়েছেন অভিযােগকারীরা। অভিযােগ বলা হয়েছে, আরিফুল ইসলাম সরকারি অনুমােদন (লাইসেন্স)
ছাড়া তার ইটভাটার ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। একই সঙ্গে ইটভাটার কারণে পাকা রাস্তাটিও ইটবাহি
গাড়ী চলাচলের কারণে এখন ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে। এ ব্যাপার ভাটা মালিককে বার বার অনুরােধ
করলেও তিনি তার ভাটা বন্ধ করেননি। বর্তমানে আরিফুল ইসলামের স্বজন শরিফুল ইসলাম বাবু তাজ ব্রিকস্
এর পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এ ইট ভাটার পরিচালক শরিফুল ইসলাম বাবুর বক্তব্যে, ইট
ভাটার বিরুদ্ধে আনিত অভিযােগ অস্বীকার করেন। বাবু জানান, পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমােদন নিয়ে তিনি ভাটা
করেছেন। তিনি পাল্টা অভিযােগ করে বলেন, তার গ্রামের বাসিন্দা কতিপয় ব্যক্তি পারিবারিক কােন্দলের জের
ধরে তাকে এবং তার মালিককে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যে ষড়যন্ত্র মূলক ভাবে এ অভিযোগ
করেছেন। এ অভিযােগের কােন ভিত্তি নেই বলে জানান। এ ব্যাপার উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার
(ইউএনও) মোঃ আরিফুজ্জামান বলেন, ইটভাটায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের অভিযাগপত্রের কপি তিনি পেয়ে তা
উল্লাপাড়ার সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) দ্রুত তদন্ত করে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার বিষয় জানিয়েছেন । এ
বিষয়ে উল্লাপাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) মােঃ মাহবুব হাসান জানান, তিনি দু’একদিনের মধ্যে সরজমিন
তদন্ত করে প্রয়ােজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা নেবেন।