সজিবুল ইসলাম হৃদয়: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাটোর-১ (লালপুর-বাগাতিপাড়া) আসনে অধ্যক্ষ (অবঃ) কামরুননাহার শিরিন ও তাইফুল ইসলাম টিপু বিএনপির দলীয় মনোনয়ন পাওয়ায় উৎসবে মেতেছে বিএনপি জোটের নেতাকর্মীরা। অনেক দিন পর উজ্জীবিত তারা। তৃণমূল নেতাকর্মীরা থেকে শুরু করে বিভিন্ন পদধারী নেতাকর্মীদের মাঝে ভেসে উঠেছে উৎসবের জোয়ার।

নাটোর-১ আসনের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা জানান, নাটোর-১ অাসনে বিএনপির যোগ্য ও পরিশ্রমী নেত্রী হলেন অধ্যক্ষ কামরুননাহার শিরিন । তিনি লালপুর ও বাগাতিপাড়া উপজেলার গ্রামে-গঞ্জে, পাড়া-মহল্লায়, মাঠে-ময়দানে ব্যাপক গণসংযোগ ও যোগাযোগ রেখে জনগণের আস্থা অর্জন করেছেন । তিনিই বিএনপির চূড়ান্ত মনোনয়ন পেতে পারে বলে জানান তৃৃৃণমূল নেতাকর্মীরা। এছাড়া তাইফুল ইসলাম টিপুকে মনোনয়ন দিলেও তারা এক হয়ে কাজ করবে বলে জানান।

অধ্যক্ষ কামরুননাহার শিরিন সাবেক যুব ও ক্রিয়া প্রতিমন্ত্রী ফজলুর রহমান পটলের সহধর্মিণী ও লালপুর উপজেলা বিএনপির সদস্য ও তাইফুল ইসলাম টিপু বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-দফতর সম্পাদক।

১নং পাকা ইউনিয়নের যুবদলের যুগ্ম অাহবায়ক অারিফুজ্জামান সরদার বলেন, সাবেক সাংসদ, যুব ও ক্রিয়া প্রতিমন্ত্রী ফজলুর রহমান পটলের মৃত্যুর পর বিএনপির দুঃসময়ে দলের নেতাকর্মীদের পাশে ছিলেন ভাবি (অধ্যক্ষ কামরুননাহার শিরিন) । অবহেলিত লালপুর-বাগাতিপাড়া বাসীর চাহিদা পূরণে তিনি সবসময় মাঠে আছেন। আমি ও বিএনপি তৃনমূল নেতাকর্মীরা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করি। লালপুর-বাগাতিপাড়ার বিএনপির নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। তিনি অারো বলেন, আমার বিশ্বাস সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে বিএনপির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত লালপুর-বাগাতিপাড়া (নাটোর-১) অাসনটি বেগম খালেদা জিয়াকে উপহার দিতে পারবো।

বিএনপির দুঃসময়ে অধ্যক্ষ কামরুননাহার শিরিন হাতে ধানের শীষ তুলে দেয়ায় বিজয় সুনিশ্চিত এমনটাই প্রত্যাশা করছেন লালপুর-বাগাতিপাড়ার তৃণমূল নেতাকর্মী।