শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুরের শ্রীবরদীতে এক রশিতে এক প্রেমিক যুগলের আত্মহত্যা করেছে। প্রেমিকের নাম মনির হোসেন (২৬) ও প্রেমিকা কল্পনা আকতারের (২২)। পুলিশ শুক্রবার সকালে উপজেলার কাকিলাকুড়া ইউনিয়নের পশ্চিম পিরিচপুর গ্রাম থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে। দু’জনেই গলায় রশি বেঁধে একটি জামবুড়া গাছের ডালে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রতিবেশীরা জানান। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, পশ্চিম পিরিচপুর গ্রামের আব্দুল বারিকের ছেলে মনির হোসেন এক সন্তানের জনক। অপরদিকে, একই গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল করিমের মেয়ে কল্পনা বেগম। দু’জনের মধ্যে বিয়ের আগে থেকেই প্রেম চলছিল। কিছুদিন আগে কল্পনার অসম্মতিতে হিম্মত আলী নামে এক যুবকের সাথে বিয়ে হয় তার। এরপর থেকে তাদের মধ্যে যোগাযোগ কমে যায়। অবশেষে বৃহস্পতিবার রাতে কোনো এক সময়ে ওই প্রেমিক যুগল মিলিত হয় এবং ঘর থেকে বের হয়ে পার্শ্ববর্তী আব্দুল খালেকের বাড়ির পাশে জামবুড়া গাছের ডালে গলায় দু’জনে এক রশি বেঁধে ঝুলে পড়ে। এতে সেখানেই তাদের মৃত্যু হয়।

সকালে আশপাশের লোকজন তাদের লাশ ঝুলতে দেখে থানায় খবর দেয়। এলাকাবাসির ধারনা দুজন দুজনকে না পাওয়ার বিরহেই আত্মহত্যার পথ বেঁছে নিয়েছে। পুলিশ সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের লাশ উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলার প্রক্রিয়া চলছে।
এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে স্থানীয় ইউপি সদস্য সিদ্দিকুর রহমান জানান, বিয়ের পর তাদের মধ্যে কোনো যোগাযোগ ছিলনা।তবে ঘটনার ওই রাতে দুজন মিলিত হয়ে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেয়। থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ রহুল আমিন তালুকদার জানান, ময়না তদন্তের জন্যে লাশ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।