কাগজ প্রতিনিধি: বগুড়ার আদমদীঘিতে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন নিহত ও পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর অবস্থার অবনতি হওয়ায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

বগুড়া-নওগাঁ মহাসড়কের মুরইল বাসস্ট্যান্ডের পাশে শনিবার বিকাল ৫টার দিকে এই এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন- আদমদীঘির উপজেলার নশরৎপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেবতি সহনের ভাই শ্যামল সহন (৫৫), দুপচাঁচিয়ার উপজেলার আফজাল হোসেন (৪৫) ও সান্তাহার এলাকার শহীদুল ইসলাম (৬৫)।

স্থানীয়রা জানায়, আদমদীঘি থেকে একটি ডাববোঝাই অটোরিকশা মুরইলের দিকে যাওয়ার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি প্রাইভেটকার মুরইল বাসস্ট্যান্ডের পশ্চিম পাশে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মুখোমুখি সংর্ঘষ হয়। এতে আট যাত্রী আহত হয়। এসময় স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে শ্যামল মারা যায়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অটোরিকশা চালক আফজাল ও শহীদুলের মৃত্যু হয়।

আদমদীঘি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, দুর্ঘটনা কবলিত অটোরিকশা ও প্রাইভেটকারটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। তবে অটোরিকশা চালক নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে, প্রাইভেটকারের দুই যাত্রীর অবস্থাও সংকটাপন্ন।