কাগজ প্রতিবেদক: গাজীপুরের টঙ্গী ব্রিজে প্রাইভেটকার থামিয়ে অস্ত্রের মুখে ডাকাতির চেষ্টাকালে র‌্যাবের টহল টিমের সঙ্গে ডাকাতদলের ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকের এ ঘটনায় দুই সন্দেহভাজন ডাকাতদলের সদস্য নিহত ও তিন র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন।

র‌্যাব-১ সূত্রে জানা গেছে, আহত র‌্যাব সদস্যদের মধ্যে দুজনকে টঙ্গী হাসপাতাল ও একজনকে ঢাকা সিএমএইচে ভর্তি করা হয়েছে। তবে নিহত ও আহতদের নাম পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক (সিও) সারওয়ার বিন কাশেম বলেন, ঈদকে সামনে রেখে টানাপার্টি, ছিনতাইকারী ও অস্ত্রের মুখে গাড়ি থামিয়ে নগদ টাকা-পয়সা লুট ও গাড়ি ডাকাতি চক্র সক্রিয় হয়েছে। এ জন্য নিরাপত্তায় র‌্যাব টহল জোরদার করেছে।

নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে আমাদের র‌্যাব-১ এর একটি টহল টিম টঙ্গী ব্রিজ এলাকায় নিয়োজিত ছিল। রাত ১২টা ২০ মিনিটের দিকে টঙ্গী ব্রিজের ঠিক নিচে একটি প্রাইভেটকার থামিয়ে অস্ত্রের মুখে ডাকাতির চেষ্টা করছিল একদল ডাকাত। চিৎকার শুনে টহল টিম ধাওয়া করলে ডাকাতদল গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও নিরাপত্তার স্বার্থে গুলি ছোড়ে।

এতে এক র‌্যাব সদস্যের (সৈনিক) বাম পায়ে গুলি ঢুকে বেড়িয়ে যায়। তাকে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়েছে। অন্য আরও দুই র‌্যাব সদস্যকে টঙ্গী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে র‌্যাবের টহল টিম পৌঁছার পর দুইজনের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায় বলে জানান তিনি।

র‌্যাব-১ সিও আরও বলেন, নিহত দুজন ডাকাতদলের সন্দেহভাজন সদস্য। তাদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, সাতটি মোবাইল, দুটি সুইচগিয়ার, ছুরি, গ্যাস লাইট ছয়টি, গুলির খোঁসা জব্দ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় টঙ্গী থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।