সাঁথিয়ায় মোবাইল চুরির অভিযোগে মারপিট, অভিমানে কিশোরের আত্মহত্যা

আব্দুদ দাইন: পাবনার সাঁথিয়ায় মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে মাসুম (১৭) নামে এক কিশোরকে পিটিয়ে আহত করে স্থানীয় কয়েকজন যুবক। অভিযোগে প্রকাশ মারপিটের অপমান সহ্য করতে না পেরে অভিমানে গাছের সাথে গলায় ফাঁস নিয়ে শুক্রবার সকালে আত্মহত্যা করে মাসুম। সে উপজেলার মিয়াপুর গ্রামের হারুণ-অর-রশিদের ছেলে। মাসুমের স্বজনদের অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নের মিয়াপুর গ্রামের টুকাইয়ের ছেলে বাবুর মোবাইল ফোন বৃহস্পতিবার দুপুরে চুরি হয়। চুরি যাওয়া ফোন উদ্ধারে মিয়াপুর গ্রামের হারুনের ছেলে মাসুমকে চোরের অপবাদে আটক করে মারপিট করে বাবু ও তার সহপাঠীরা। চুরি ও মারপিটের অপমান সহ্যতে না পরে শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশে বাছেদ ডাক্তারের আম গাছের সাথে ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে মাসুম।স্থানীয়রা তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে সাঁথিয়া থানা পুলিশকে সংবাদ দেন। থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। এ বিষয়ে মাসুমের নানী তোতা খাতুন জানান, বৃহস্পতিবার রাত ১০টা দিকে টেগরের ছেলে সজীব, মুসার ছেলে সজলসহ ৭/৮জন মাসুমকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে মারপিট করে। সকালে আম গাছের ডালে গলায় ফাঁস নিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় মাসুমকে লোকজন দেখতে পায়। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল। সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, মাসুমের লাশের ময়না তদন্ত রিপোর্ট ও স্থানীয়ভাবে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।