প্রি-পেইড মিটার নামক রাক্ষুসে মিটার খুলে নিন, আগের মিটার ফিরিয়ে দিন

মোঃ সদরুল কাদির (শাওন): বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটার নিয়ে গ্রাহক বিড়ম্বনা এবং ওজেপাডিকার অনিয়ম ও অস্বছতার বিষয় সাতক্ষীরায় নাগরিক গণশুনানী অনুষ্ঠিত হয়েছে। নাগরিক আন্দোলন মঞ্চ সাতক্ষীরার আয়োজন শুক্রবার সকাল ১০ টায় জেলা পুরাতন আইনজীবি সমিতি ভবন উক্ত গণশুনানী অনুষ্ঠিত হয়।

নাগরিক আন্দোলন মঞ্চ সাতক্ষীরার সভাপতি এড. ফাহিমুল হক কিসলুর সভাপতিত্বে ও সংগঠনটির সাধারন সম্পাদক হাফিজুর রডহমান মাসুমের সঞ্চালনায় গণশুনানীতে বক্তব্যে রাখেন, সাতক্ষীরা জজ কোর্টের সাবেক পিপি ও জেলা আওয়ামীলগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. ওসমান গণি, জাসদের কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক শেখ ওবায়দুস সুলতান বাবলু, জেলা জেএসডির সাধারন সম্পাদক সুধাংশু শেখর হালদার, জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আনোয়ার জাহিদ তপন, প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক কল্যাণ ব্যানার্জী, বাংলাদেশ জাসদের সাধারন সম্পাদক ইদ্রিস আলি, জেলা আওয়ামীলীগ ত্রান ও পূর্ণবাসন সম্পাদক এড. আজহারুল ইসলামসহ শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত ভুক্তভোগী নাগরিকগণ।

বক্তারা বলেন, অনিয়ম ও হয়রানি থেকে গ্রাহকদের রেহাই দিতেই চালু করা হয় বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটার। কিন্তু সেই প্রি-পেইড মিটার এখন গ্রাহকদের গলার কাঁটা হয়ে দাড়িয়েছে। প্রিপেইড মিটার স্থাপনের জন্য গ্রাহকদের কোনও ফি গুনতে হবে না বলা হলেও এই মিটারের জন্য প্রতি মাসে ৪০ টাকা কেটে নেয়া হচ্ছে এবং প্রতি মাসে ৫০ টাকা ডিমান্ড চার্জও গুনতে হচ্ছে গ্রাহকদের। অনেকের দাবী এটা রাক্ষুসে মিটার। এছাড়া বিভিন্ন চার্জের নামে গ্রাহকদের কাছ থেকে কেটে নেওয়া হচ্ছে অতিরিক্ত অর্থ। এছাড়া প্রি-পেইড মিটারের সার্ভার ত্রুটির কারণে টাকা রিচার্জ করতে গিয়ে হয়রানিরও শিকার হতে হচ্ছে। ভুক্তভোগী বক্তারা এ সময় দ্রুত এই প্রি-পেইড মিটার খুলে আগের ডিজিটাল মিটার স্থাপনের জোর দাবী জানান।