রংপুরের শ্যামাসুন্দরী খালের সীমানা নিদ্ধারণ, পুরুদ্ধার ও পুনরুজ্জীবন কর্মসূচীর উদ্ধোধন

জয়নাল আবেদীন: রংপুর নগরীর সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে যা যা করা দরকার তাই করার ঘোষনা দিয়েছেন রংপুরের বিভাগীয় কমিশনার একেএম তারিকুল ইসলাম। তিনি বুধবার নগরীর ধাপ চেকপোষ্ট এলাকায় রংপুরের শ্যামা সুন্দরী খালের সীমানা নিদ্ধারণ, পুরুদ্ধার ও পুনরুজ্জীবন কর্মসূচীর উদ্ধোধন উপলক্ষ্যে এক সুধি সমাবেশে এসব কথা বলেন।বিভাগীয় কমিশনার বলেন, শ্যামা সুন্দরী খাল ১শ২০ ফিট থেকে এখন মাত্র ২০ ফিটে এসে দাড়িয়েছে। অনেকে এই খালের জায়গা দখল করে অট্টালিকা নির্মাণ করেছেন। বাড়ির পয়ঃনিস্কাশনের সংযোগ খালের সাথে করে দিয়েছেন।তিনি বলেন, এই খাল সংস্কার ও এর জায়গা উদ্ধারের জন্য সকলের আন্তরিকতা রয়েছে। শ্যামাসুন্দরী খাল এখন শরু নালায় পরিনত হয়েছে। সেনাবাহিনী এই খাল পুরুদ্ধার ও পুনরুজ্জীবনের জন্য আমাদের সহযোগীতা করছেন। আশাকরছি আমরা এই খাল সংস্কার করে একটি সুন্দর নগরী আপনাদের উপহার দিতে পারবো।বিভাগীয় কমিশনার বলেন, রংপুর বিভাগীয় প্রশাসন, রংপুর জেলা প্রশাসন, রংপুর সিটি কর্পোরেশন, রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সেনাবাহিনীর সহযোগীতায় এর কাজ করা হবে। এটি সংস্কারের সময় যেন কোন ধরণের দূর্নীতি না হয় সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখা হবে। তিনি বলেন, প্রথম পর্যায়ে ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে এর কাজ অচিরেই শুরু করা হবে। এজন্য খালের দুই ধারের জায়গা দখলকারীদের চিহিৃত করণের জন্য স্থান নির্ধারনের কাজ শুরু হয়েছে বলে জানান তিনি।রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, রংপুর ক্যান্ট বোর্ডের নির্বাহী আলিয়া ফেরদৌস জাহান, রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত¡াবধায়ক প্রকৌশলী হারুন অর রশীদ, রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আবু সুফিয়ান রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মারুফ হাসান, রংপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি রশীদ বাবু, সাধারন সম্পাদক রফিক সরকার প্রমুখ।