কলাপাড়ায় জেলেদের ভিজিএফ চাল আত্মসাৎ , ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গ্রেফতার

এস কে রঞ্জন: পটুয়াখালীর কলাপাড়ার মহিপুর ইউনিয়ন পরিষদে সোমবার সকাল ১০টায় জেলে পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ শুরু করেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। প্রথম দিনে ৬৮৭ জেলে পরিবারের মাঝে ২০ কেজি করে ১৩ হাজার ৫৬০ কেজি চাল দেওয়ার কথা থাকলেও ওজনে কমদিয়ে ১৭শত ১৭ কেজি চাল আত্মসাত করেন। আত্মসাতের অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. মামুন হাওলাদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এঘটনায় কলাপাড়া উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা তপন কুমার ঘোষ বাদি হয়ে সোমবার সন্ধ্যায় মহিপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। জেলেদের অভিযোগের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনিবুবর রহমানের নির্দেশে উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা তপন কুমার ঘোষ সরেজমিন গিয়ে ভুক্তভোগিদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং জেলেদের মাঝে ওজনে চাল কম দেওয়ার অভিযোগ প্রমানিত হওযায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করেন। উল্লেখ্য, গত ০৯ অক্টোবর থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত ২২ দিনের মা ইলিশ শিকার বন্ধের জন্য সরকার অবরোধ ঘোষনা করেন। সেই অবরোধ কালীন জেলেদের খাদ্য সহায়তার জন্য মহিপুর ইউনিয়নের ১২শত জেলের জন্য ২০ কেজি হারে সরকারি ২৪ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ হয়। গত ২৬ অক্টোবর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে মো. মামুন হাওলাদার কলাপাড়া খাদ্য গুদাম থেকে বরাকৃত চাল উত্তোলন করে। মহিপুর থানার ওসি মো. সোহেল আহম্মেদ জানায়, এঘটনায় উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করায় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এব্যাপারে প্রকল্প কর্মকর্তা তপন কুমার ষোঘ জানায়,জেলেদের খাদ্যসহায়াতা হিসেবে সরকারের দেয়া ভিজিএফ এর চাল বিতরনে সরকার অনিয়ম রোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় ৬৮৭ জেলে পরিবারকে ওজনে চাল কম দিয়ে ১৭ শত ১৭ কেজি চাল আত্মসাত করে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. মামুন হাওলাদার। সেই অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।