এদেশে আগামী দিনে মেসি-নেইমার তৈরি হবে: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

জয়নাল আবেদীন: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যাগে শুরু হওয়া বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট থেকে এদেশে আগামী দিনে মেসি-নেইমার তৈরি হবে আশা ব্যক্ত করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এমপি। তিনি বলেছেন, আজকে যারা প্রাথমিকের গন্ডি থেকে ফুটবল খেলছে, প্রতিযোগিতামূলক টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে। একদিন এদের মধ্য থেকেই বাংলাদেশ মেসি-নেইমারের মত তারকা খেলোয়াড় খুঁজে পাবে। প্রধানমন্ত্রী সেই অনুধাবন থেকে সারাদেশে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু করেছে। ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে সেইদিন এই টুর্নামেন্ট হবে মাইলফলক।রংপুর স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক ফুটবল টুর্নামেন্টের বুধবার বিকেলে সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, আমাদের স্বাধীনতা এনেছে দিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আর অর্থনৈতিক মুক্তি ও সমৃদ্ধির দ্বার উন্মোচন করেছে তার কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা। সর্ব ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, আরো এগিয়ে যাবে। দেশের ফুটবলের হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনতে সারাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১০ বঙ্গবন্ধু ও ২০১১ বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্ভাবন করেছেন। এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে ক্রীড়াঙ্গনে ফুটবলের জাগরণ শুরু হয়েছে বলে জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফসিউল্লাহ,রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কে.এম. তারিকুল ইসলাম, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আব্দুল আলীম মাহমুদ, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল ছাড়াও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন। টুর্নামেন্টের ফাইনালে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম পশ্চিম জগৎবেড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বালক দল ৫-০ গোলে গাইবান্ধার পলাশবাড়ি রতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দলকে পরাজিত করে। এর আগে রংপুরের বদরগঞ্জ জামুবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বালিকা দলকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে বিভাগীয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম টেপুরবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দল। এই টুর্নামেন্টে রংপুর বিভাগের আট জেলার ১৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয় দল অংশগ্রহন করে। টুর্নামেন্টের বিজয়ী দুই দল জাতীয় পর্যায়ে অংশগ্রহণ করবে।