কলাপাড়ায় এমপি মহিব্বুর’র পিএ তরিকুলসহ সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

এস কেজ রঞ্জন: পটুয়াখালী-৪ আসনের এমপি মহিব্বুর রহমান’র পিএ তরিকুলের নেতৃত্বে বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলা,ঘের দখল চেষ্টা, জামাত শিবির ষ্টাইলে রগ কেটে হত্যা চেষ্টার প্রতিবাদ এবং দোষীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে কলাপাড়া প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ধূলাসার ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান। এসময় তার ছোট ভাই মহিপুর থানা শ্রমিক লীগের সাবেক আহবায়ক মশিউর রহমান সহ কলাপাড়ায় কর্মরত প্রিন্ট, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে মাহবুবুর রহমান বলেন,’২৭ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যায় কাউয়ার চরে অবস্থিত আমার ঘের দখলে নিতে এমপি মহিব্বুর’র পিএ তরিকুল’র নেতৃত্বে ৫০-৬০ জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ রামদা, চাপাতি, লোহার রড নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় আমার সন্তানরা বাঁধা দিলে তাদের হত্যা চেষ্টা করে তরিকুল সহ সন্ত্রাসীরা। এতে আমার বড় ছেলে নুর বাহাদুর’র বাম হাতের কব্জি সহ রগ কেটে যায়। এরপর তার বাম চোখ নষ্ট করে দেয়ার জন্য উপর্যুপরি আঘাত করা হয়। চিকিৎসকরা তাকে কলাপাড়া থেকে বরিশাল ও বরিশাল থেকে ঢাকায় রেফার করেন। হামলার সময় সন্ত্রাসীরা মেজ ছেলে জুয়েল ও ছোট ছেলে সোহেলকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। তাদের দু’জনের বাম হাত ও পায়ে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। সন্ত্রাসীরা আমার ছোট ভাই হেলাল’র মাথায় আঘাত করে মাথা ফাঁটিয়ে দেয়। ঘটনার পর গুরুতর আহত ছেলেদের ও ভাইকে নিয়ে কলাপাড়া হাসপাতালের দিকে আসার পথে বাঁধা প্রদান করে এবং ফের তাদের উপর হামলা চালায়। তারা আমাকেও মারধর করে।’ মাহবুব বলেন, ’বিএনপি-জামাত জোট আমলে মামলা, হামলা-নির্যাতনের শিকার হয়েছি। কিন্তু দু:খজনক হলেও সত্যি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রাত থেকেই আমার পরিবারের উপর নেমে আসে ফের নির্যাতনের খড়গ। এরপর নিরাপত্তার অভাবে তিন পুত্র সহ দীর্ঘদিন ঢাকায় থাকি। শুধু আমি নই আ’লীগের শত শত নেতা-কর্মী এসব ক্যাডর বাহিনীর হামলা, দখল, নির্যাতনের শিকার হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এসব নির্যাতনের খবর বিভিন্ন জাতীয়, আঞ্চলিক ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে প্রকাশ পেয়েছে। ’ সংবাদ সম্মেলনের শেষাংশে আ’লীগ নেতা মাহবুবুর রহমান প্রধান মন্ত্রী, আ’লীগ নেতৃবৃন্দ, প্রশাসন ও আইন শৃংখলা বাহিনীর কাছে এমপি’র পিএ তরিকুল সহ ঘটনার সাথে জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও দ্রুত বিচারের দাবী জানিয়েছেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মহিপুর থানার উপ-পরিদর্শক মো: মনিরুজ্জামান বলেন, ’ঘটনার পর মহিপুর থানায় তরিকুল সহ ২০জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। পুলিশ ইতোমধ্যে শাহিন নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে। বাকীদের গ্রেফতারে পুলিশী অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান তিনি।’ এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে কলাপাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এমপি মহিব্বুর রহমানকে নিয়ে অপপ্রচার ও পিএ তরিকুলের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানানো হয় অপর এক সংবাদ সম্মেলনে। ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টায় সাংবাদিকদের সতর্ক থাকার অনুরোধ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ধূলাসার ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ইউনুস দালাল। এসময় উপজেলা আ’লীগ সহ- সভাপতি অধ্যক্ষ সৈয়দ নাসির উদ্দীন, শহর শ্রমিক লীগের সাধারন সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রকি উপস্থিত ছিলেন।

Previous articleভূঞাপুরে কৃতি শিক্ষার্থী ও প্রেসক্লাবের নতুন কমিটিকে সংবর্ধণা
Next articleজয়পুরহাটে বিএনপি’র বিক্ষোভে পুলিশের বাধা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।