সিংগাইরে শত্রুতার জেরে প্রাইভেটকারে দুর্বৃত্তদের আগুন

মিজানুর রহমান বাদল: মানিকগঞ্জের সিংগাইরে পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রাইভেটকারের আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে দৃর্বত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলার পৌর এলাকার পুকুরপাড়া মহল্লায়। প্রাইভেটকারের মালিক ওই এলাকার মৃত ইদ্রিস আলীর ছেল শহিদুল ইসলাম ডালিম(৪২)। রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ২ টার দিকে ডালিমের বিল্ডিংয়ের নিচে এ ঘটনা ঘটে। তার মেয়ে ৯ম শ্রেণির ছাত্রী আফিয়া আনজুম ডালিয়া জানায়, রাত ২টার দিকে হঠাৎ একটা বিকট শব্দে আমার ঘুম ভেঙ্গে যায়। এরপর উঠে দেখি সিড়ির নিচে রাখা গাড়ীতে আগুন দেখে চিৎকার করি। পাশের রুমে থাকা আমার বাবা মা উঠে পানি দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। পরে প্রতিবেশ আমির হামজা (৪৫) ও আক্কাছ আলীর (৩৮) সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয়। কে বা কারা আগুন দিয়েছে তাদেরকে আমরা দেখি নাই। এ ঘটনার পর ডালিম মোবাইলফোনে সিংগাইর থানাকে অবহিত করেন। সাথে সাথে থানার এসআই আশরাফ হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। আজ সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে সিংগাইর থানায় ডালিম বাদী হয়ে প্রতিবেশী হারুনুর রশিদ ও সুলতানা রাজিয়া নামে অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ব্যাপারে ডালিম বলেন, শত্রুতার জেরধরে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। আমার প্রতিপক্ষ হারুনুর রশিদ ও সুলতানা রাজিয়া শত্রুতা হাসিলের জন্য আমার প্রাইভেটকার (ঢাকা-মেট্রো-প-১১-৪৮৬৯) জ্বালিয়ে দিয়েছে বলে ধারণা করছি। এ ছাড়া প্রতিপক্ষ আমিসহ এলাকাবাসীর নামে ১৪ টি মামলা করে হয়রানি করে আসছে।এছাড়াও গত ৭ দিন আগে আমার পুকুরের বিষ দিয়ে লাখ লাখ টাকার মাছ মেরে ফেলেছে। ওরা আমাকে জানে মেরে ফেলতে পারে। এ ঘটনার পর থেকে আমি ও আমার পরিবারের সবাই নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত হারুনুর রশিদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা কওে পাওয়া যায়নি।

সিংগাইর থানার এস,আই আশরাফুল ইসলাম বলেন, ঘটনার পরেই গিয়ে দেখি আগুন দেয়ার কিছু আলামত পেয়েছি। কে বা কারা আগুন দিয়েছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের দাবী অভিযুক্তরা ঘটাতে পারে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।