তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রায়পুর শহরের বালিকা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছনে কৃষি অফিসের পরিত্যক্ত ভবন। নানান রকমের লতাপাতা- পরগাছায় ছেয়ে গেছে ভবনের চার পাশ। ভেতরের পরিত্যক্ত অংশে সন্ধ্যার পরই বসে মাদকের আড্ডা। পোষ্ট অফিসের পিছনে পাউবোর শতবর্ষী পুরাতন ও পরিত্যক্ত কয়েকটি ভবন রয়েছে। প্রতি রাতেই সেখানে মাদকসেবীদের আড্ডায় অতিষ্ঠ স্থানীয়রা। সম্প্রতি-সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রায়পুর বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছনে থানার সামনে- অবস্থিত কৃষি অফিসের ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পরে আছে। ভবনের চার পাশে লতাপাতা আর পরগাছা এমন ভাবে ছেয়ে গেছে যে দূর থেকে মনে হবে কোন ভূতরে বাড়ি। ভবনের ইট গুলোর অবস্থা এতোটাই নাজেহাল যে হাত দিলেই মাটিরে পরে গড়াগড়ি খাওয়া অবস্থা। ভবনের পাশ দিয়ে চলাচলের সময় ঘোষ বাড়ীর বাসিন্দারা ও অনেক পথচারীর মাথায় ইটও খসে পরেছে। পরিত্যক্ত ভবনের কক্ষ গুলোতে পড়ে আছে অসংখ্য ফেন্সিডিল ও মদের বোতল। থানার দক্ষিন পাশে সড়ক ও জনপথের সহকারি প্রকৌশলীর কার্যালয়। বছরের পর বছর কর্মকর্তা-কর্মচারিবিহীন পড়ে থাকে এটি। দুটি স্থানেই সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসলেই সেখানে বসে মাদক ব্যবসায়ীদের আড্ডা। প্রায় সময় ভবনে হয় অর্থনৈতিক কর্মকান্ড। স্থানীয়রা জানান ও অনুসন্ধানে দেখা যায়, রায়পুর বাসটার্মিনালের পিছনে সুপারি বাগান,মহিলা কলেজের পিছনে, রাখালিয়া বেঙ্গল সু- কারখানার পাশে, হাজিমারা পাউব্#ো৩৯;র পরিত্যাক্ত ভবনে, হায়দরগঞ্জ ভেরী বাঁধের উপর (চরভৈরবি ও হাইমচর বোর্ডার), মিতালী বাজারের পাশে, খাজুরতলা শ্বশানঘাটের পাশে-জনকল্যাণ হাই স্কুলের পাশে-সোলাখালি ব্রিজের পাশে, মীরগঞ্জ বাজারের পাশে,সাজু মোল্লা ও আলতাফ মাষ্টাটারের মাছ ঘাট পার হয়ে মেঘনা নদীর ওপাড়েসহ ১৫ স্থানে মাদক বিক্রি ও সেবন চলে। কয়েকজন ইউপি সদস্য, রাজনীতীবীদ, ব্যবসায়ী ও প্রবাসীর সন্তানেরাই জড়িয়ে পড়ছে। স্থানীয়রা আরো জানান,সন্ধ্যার পরে ওইসব স্থানে মাদক ও জুয়ার আসর বসে। রাত যতই বাড়ে মাদকসেবী ও জুয়ারীদের-চেচামেচিতে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পরেছে। অনেক সময় ভবনগুলোর ভিতরে বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক কাজ হয়। তাই ভবনগুলো ভেঙ্গে নতুন ভবন নির্মাণ অথবা অন্য কোন কাজে লাগানোর জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। রায়পুর কৃষি কর্মকর্তা মোস্তফা হাসান ইমাম, সড়ক ও জনপথে সহকারি প্রকৌশলী মোঃ কাউছার ও পাউবোর সহকারি প্রকৌশলী আলমগীর হোসেন. জানান, স্ব-স্ব অধিদপ্তরের পুরনো ভবনগুলো ভেঙ্গে নতুন ভবন নির্মাণের জন্য সংশ্লিস্ট মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, প্রতিদিন মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। অভিযানও অব্যাহত রয়েছে। মাদক ও সন্ত্রাস নির্মুলে পুলিশের একার পক্ষে সম্ভব না। সকলের সহযোগিতায় মাদকসহ সকল অপরাধ দমন করা সহজ হবে। সকল শ্রেনী পেশার সহযোগিতা চাই।

Previous articleরায়পুরে ১০ মাসে পানিতে ডুব ৪৫ শিশুর মৃত্যু
Next article৫ দফা দাবিতে পাবনা সুগার মিলের শ্রমিক-কর্মচারী ও আখচাষীদের মানববন্ধন, সংসদ সদস্যের বাড়ি ঘেরাও
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।