বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ভোলার চরফ্যাসনের প্রেমের ফাঁদে ফেলে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে মো. মঞ্জু নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) সকালে চরফ্যাশন থানায় এ মামলা দায়ের করেন। অভিযুক্ত মঞ্জু আসলামপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের রত্তন চৌকিদারের ছেলে। নির্যাতনের শিকার ওই তরুণীর বাড়িও একই এলাকায়।

জানা গেছে, মাদ্রাসায় যাওয়া-আসার সময় প্রতিবেশী মঞ্জুরের সঙ্গে তিন বছর আগে ওই তরুণীর প্রেমের সম্পর্ক হয়। মঞ্জুর বিয়ের আশ্বাসে তাদের মধ্যে সম্পর্ক আরও গভীর করে। পরিবারের লোকজনের অগোচরে মঞ্জু তরুণীর বাড়িতেও যাওয়া-আসা করত। এর মধ্যে দুজনের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত বুধবার অভিযুক্ত মঞ্জু বিয়ের ব্যাপারে অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলার অজুহাতে তরুণীর বাড়িতে যায়। ওইসময় তরুণীর অসুস্থ মা ছাড়া বাড়িতে অন্য কেউ ছিল না। এ সময় মঞ্জুর শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তরুণীকে রান্নাঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। তার চিৎকারে লোকজন ছুটে এলে মঞ্জু পালিয়ে যায়।

চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনির হোসেন মিয়া জানান, নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।