বাংলাদেশ প্রতিবেদক:  বদলির পূর্বমুহুর্তে বাজারের চান্দিনা ভিটি বরাদ্দের নামে ১০ লক্ষাধিক টাকা আতœসাতের অভিযোগ উঠেছে সার্ভেয়ার তায়্যেবুর রহমান ওরফে জুয়েলের বিরুদ্ধে। তিনি মুলাদী উপজেলা ভূমি অফিসে সার্ভেয়ার থাকাকালীন উপজেলার সফিপুর ইউনিয়নের সোনামদ্দিন বন্দরের চান্দিনা ভিটি বরাদ্দের নাম দিয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রায় ১০লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে বদলী হয়ে গেছেন। তায়্যেবুর রহমান ওরফে জুয়েল বর্তমানে গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলা ভুমি অফিসে কর্মরত রয়েছেন বলে জানিয়েছেন মুলাদী ভূমি অফিসের কর্মকর্তারা। চান্দিনা ভিটি বরাদ্দের নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় ওই সার্ভেয়ারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়ে সহকারী কমিশনার (ভুমি) বরাবর আবেদন দিয়েছে। বোয়ালিয়া গ্রামের জয়নাল আবেদীন মোল্লার ছেলে জাবের মোল্লা জানান মুলাদী ভুমি অফিসের সাবেক সার্ভেয়ার তায়্যেবুর রহমান ওরফে জুয়েল এই উপজেলায় থাকাকালীন সোনামদ্দিন বন্দরে একটি চান্দিনা ভিটি বরাদ্দ দেওয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে ৭০ হাজার টাকা নিয়েছেন। এছাড়া ওই বন্দরের ১৫/২০ জন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে প্রায় ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। টাকা নেওয়ার পর পরই তিনি মুলাদী থেকে বদলি হয়ে গোপালগঞ্জ চলে গেছেন। ব্যবসায়ীদের ধারণা বদলির বিষয়টি জানতে পেরেই সার্ভেয়ার তায়্যেবুর রহমান তাদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আতœসাৎ করেছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. শাহানুর জামান বিষয়টি স্বীকার করে জানান সংশ্লিষ্ট সার্ভেয়ার বদলি হয়ে যাওয়ায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ব্যবসায়ীদের অভিযোগের কপি বরিশাল জেলা প্রশাসকের বরাবরে প্রেরণ করা হবে। অপরদিকে সার্ভেয়ার তায়্যেবুর রহমান ওরফে জুয়েল ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন সোনামদ্দিন বন্দরের ভিটি বরাদ্দের কথা বলে কারও কাছ থেকে টাকা নিয়েছি বলে আমার মনে পড়ে না।