বাংলাদেশ প্রতিবেদক: জয়পুরহাটে ১৪ বছর বয়সী এক মানসিক ও শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে রুহুল আমিন নামে এক পল্লী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্তের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন নির্যাতিতার স্বজন ও এলাকাবাসী। এরই মধ্যে অভিযুক্ত চিকিৎসককে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ।

স্বজনদের অভিযোগ, শুক্রবার সকালে জয়পুরহাটে পাঁচবিবি উপজেলায় মানসিক ও শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে পল্লী চিকিৎসক রুহুল আমিন। বাড়ি ফিরে স্বজনদের জানালে কিশোরীকে আধুনিক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সময় সংবাদকে জয়পুরহাট আধুনিক জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, মেয়েটিকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে আর রিপোর্ট আসার পর বিস্তারিত জানানো যাবে।

পাঁচবিবি উপজেলার বাংলাদেশ নারী মুক্তি সংসদের সভাপতি মোছা. মাসুদা বেগম ঝর্ণা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।

এ ঘটনায় নির্যাতিতার বাবা পাঁচবিবি থানায় মামলা দায়ের করলে অভিযুক্ত রুহুলকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। এ তথ্য নিশ্চিত করেন জয়পুরহাট পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পলাশ চন্দ্র। তিনি আরো জানান, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে।

এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি এলাকাবাসীর।