রেজাউল ইসলাম পলাশ: ঝালকাঠির রাজাপুরে শুক্তাগড় মাহামুদিয়া দাখিল মাদ্রাসা এর নবসৃষ্ট পদে ‘নিরাপত্তা কর্মী’ নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়েছে। আদালতের বিচারক বিবাদীদে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন। ঝালকাঠির সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের বিচারক সোমবার (৫ মার্চ) আগামী সাত দিনের মধ্যে মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সহ ৭ জন বিবাদীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠিয়ে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেন। গত ৩১ মার্চ নিয়োগবঞ্চিত আবুল কালাম আদালতে ৫৮/২০২১ মামলাটি দায়ের করেন। বুধবার বাদী পক্ষের দেওয়ানী কার্যবিধির ৩৯ অর্ডারের ১/২ রুলের বিধান মতে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা গর্ভাডিং বডির সভাপতি মোঃ ইদ্রিস আলী, মাদ্রাসা সুপার এফ এমন মাহাবুবুর রহমান ও মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা চলাকালে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন করা হলে বিজ্ঞ বিচারক মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ পর্যন্ত স্থিতি অবস্থা বজায় রাখা সহ কারন দর্শানোর এ আদেশ দেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত বছরের ৯ ডিসেম্বর নিরাপত্তা কর্মী নিয়োগের জন্য জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ১০ টি আবেদন গ্রহন করেন। গত ২০মার্চ ২০২১ ইং তারিখ শনিবার ঝালকাঠি ইসলামিয়া ফাযিল মাদ্রাসায় নিয়োগ পরীক্ষার আয়োজন করেছিলেন মাদ্রাসা কতৃপক্ষ। সেখানে আবেদন করা ১০ জনের মধ্যে ৭ জন লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। উল্লেখ্য, নিরাপত্তাকর্মী পদে চাকরির জন্য নিয়োগ বঞ্চিত ৫ জন আবেদনকারি মিলে রাজাপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ২২ মার্চ সকালে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মোঃ ইদ্রিস আলী হাওলাদারের বিরুদ্ধে চাকরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে যোগসাজশে নিয়োগ দেওয়া উক্ত পদে নিয়োগ বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেন।

Previous articleটাঙ্গাইলে স্বামীকে হত্যা করে লাশ গুম, প্রেমিকসহ স্ত্রী আটক: সেপটিক ট্যাংক থেকে লাশ উদ্ধার
Next articleমুলাদীতে লকডাউনের মধ্যেও শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে প্রাইভেট পড়ানোর অভিযোগ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।