জি.এম.মিন্টু: কেশবপুরে টোঙ ঘরে রেখে যাওয়া বোমা বিষ্ফোরনে ঘটনাস্থলে মারা গেছে ছেলে আব্দুর রহমান, গুরুতর আহত মা ও মেয়েকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে টোঙ ঘরের পাশ্ববর্তি এক যুবলীগ নেতার ঘেরর টোঙ ঘর থেকে মাদক সেবনের সরাঞ্জাম উদ্ধার করেছে। জানা গেছে, চলাচলে অক্ষম স্বামীর অবর্তমানে কেশবপুর উপজেলার বাউশলা গ্রামের মিজানুর রহমানের স্ত্রী নিলুফা বেগম প্রতি দিনের ন্যায় বৃহস্পতিবার সকালেও বাড়ীর পাশ্ববর্তি মাঠে যায় তাদের স্যালো মেশিন পানি উঠছে কিনা তা দেখতে। এসময় টোঙ ঘরে স্যালো মেশিনের পাশে পরিতাক্তবস্থায় একটি কৌটা পড়ে থাকতে দেখে সে কৌটাটি হাতে করে বাড়ীতে আনে। দুপুরের দিকে নিলুফা, তার ছেলে আব্দুর রহমান ও মেয়ে মারুফা মিলে কৌটাটি খোলার চেষ্টাকালে সেটি বিষ্ফোরিত হয়। এত ঘটনাস্থলে ছেলে আব্দুর রহমান (১০) নিহত হয়। মারাত্বকভাবে আহত হয় নিলুফা (২৭) ও শিশু কন্যা মারুফা(৪)। প্রতিবেশীরা আহত মা- মেয়েকে মুমুর্ষবস্থায় উদ্ধার করে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলের পাশ্ববর্তি এক যুবলীগ নেতার ঘেরের টোঙ থেকে মাদক সেবনের সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে। এব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জসীম উদ্দীন বলেন, তিনি নিজে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তবে টোঙ ঘরে বোমা রাখার ঘটনাটি পূর্বপরিকল্পিত বলে তিনি ধারনা করেন। বোমার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে তাদেরকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।

Previous articleতুচ্ছ ঘটনাকে কেদ্র করে বাউফলে সংঘর্ষে আহত ২৭
Next articleযুক্তরাষ্ট্রে আবারও বন্দুক হামলা, নিহত ৮
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।