স্বপন কুমার কুন্ডু: বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপনি ইয়াফেস ওসমানের নের্তৃত্বে বাংলাদেশের একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল রাশিয়ায় রোসাটমের টেকনিক্যাল একাডেমী পরিদর্শন করেছেন।

রাশিয়ান ফেডারেশন পরিদর্শনের অংশ হিসেবে বাংলাদেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়, আনবিক শক্তি কমিশন, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যাবস্থাপক এবং বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে গঠিত প্রতিনিধি দল পরিদর্শনে অংশগ্রহন করেন। রাশিয়ার পক্ষ হতে প্রতিনিধিত্ব করেন, রোসাটম রাষ্ট্রীয় আনবিক শক্তি
কর্পোরেশন ও রোসাটম সার্ভিস জেএসসি এবং টেকনিক্যাল একাডেমীর ব্যাবস্থাপনা বিভাগের এর প্রতিনিধি। রোসাটমে গণমাধ্যম শাখা শনিবার ( ৭ জুলাই) এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এই পরিদর্শনের খবর জানিয়েছে।

পরিদর্শনের প্রধান উদ্দেশ্য ছিলো বাংলাদেশে রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মানের চুক্তি অনুযায়ী পারমানবিক কেন্দ্রের বিশেষজ্ঞদের প্র্রশিক্ষনের বিষয়ে আলোচনা। আলোচনায় বৈশ্বিক মহামারীর বিষয়টি গত বছরের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জ হিসেবে উঠে আসে।

রাশিয়াতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের জন্যে টীকা এবং ১৫০০ এর বেশি পিসিআর টেস্ট নিশ্চিত করা হয়েছে। পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ইন্টার্নশিপের সময় তাদের জন্যে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যাবস্থা করা হয়েছিলো। বর্তমানে বাংলাদেশী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষনের বিষয়টি রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মানের সুচীতে অন্তর্ভুক্ত করা আছে।

বৈঠকে রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্যে প্রশিক্ষন এবং পদ্ধতিকরণ উপকরন ; ডকুমেন্টেশন, কম্পিউটার ভিত্তিক প্রশিক্ষন ব্যাবস্থা, পোস্টার ও জটিল তথ্য ব্যাবস্থা বিশেষ মনোযোগ দেয়া হয়, যা প্রশিক্ষনের সময়মত শুরু নিশ্চিত করবে।

পরিদর্শনকালে প্রতিনিধিদল বাংলাদেশের প্রশিক্ষানার্থীদের সাথে কথা বলেন এবং প্রশিক্ষনে ব্যাবহৃত নতুন প্রযুক্তি; ভিভিইআর ১২০০ পাওয়ার ইউনিট এবং পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রদর্শনের জন্যে একটি ভিজুয়াল প্রোটোটাইপিং থ্রিডি প্রদর্শনীর কমপ্লেক্সের সাথে পরিচিত করা হয় ।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান বলেন, “রাশিয়ার পরিকল্পনায় বাংলাদেশে পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মান আমাদের জন্যে বিশেষ গর্বের বিষয় । পারমানবিক প্রযুক্তি নতুন প্রজন্মের কাছে হস্তান্তর করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন। তাত্বিক ও ব্যাবহারিক জ্ঞান ও দক্ষতার সমন্বয় এই ধরনের জটিল প্রযুক্তি আয়ত্বে আনার জন্যে সহায়ক”।

রূপপুর পারমানবিক কেন্দ্র নির্মান প্রকল্পের পরিচালক এবং এএসই জেএসসি এর ভাইস প্রেসিডেন্ট এলেক্সি ডেইরী জানান, “বর্তমানে প্রশিক্ষনার্থীদের রাশিয়া পাঠানোর প্রক্রিয়া পুনরায় চালু হয়েছে । এতে তাদের প্রশিক্ষনের সম্পুর্ন সময়ে রাশিয়াতে অবস্থান করার ভিসা প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন।

রোসাটম টেকনিকাল একাডেমীর প্রশিক্ষকদের মতে, বাংলাদেশের ছাত্ররা শিক্ষিত, তাদের দেশে এবং দেশের বাইরে থেকে উচ্চশিক্ষা লাভ করা মার্জিত মানসিকতা সম্পন্ন। এরা সুশৃঙ্খল এবং তারা জানে যে, নিজেদের জীবনের সাফল্যের জন্যে প্রস্তুতি অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন। মিড টার্ম পরীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিশেষজ্ঞদের গড় সাফল্য ৯৫.৫% ভাগ।

Previous articleপরীমনির বেপরোয়া জীবন-যাপনের কারনেই দুরে সরে আসেন কেশবপুরের সৌরভ
Next articleউপহারের ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স দিল ভারত সরকার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।