জি.এম.মিন্টু: যশোরের কেশবপুরের ছেলে সাবেক ফুটবলার ফেরদৌস কবীর সৌরভের সাথে ২ বছর সংসার করেছেন বর্তমান সময়ে টক অব দ্যা কান্ট্রি ও ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা সামছুন্নাহার স্মৃতি উরফে পরীমনি।

২০১২ সালের ২৮ এপ্রিল সামসুন নাহার স্মৃতি ওরফে পরীমনির সাথে প্রথম বিয়ে হয় তার। কিন্তু বিয়ের ২ বছর পরব থেকে ইচ্ছেমত জীবন-যাপন করার কারণে পরীমনির থেকে দূরত্ব হয় তার স্বামী সৌরভের। সাবেক ফুটবলার সৌরভ কবির সাংবাদিকদের জানাান, ভালোবাসার সম্পর্ক থেকেই তার সাথেই পরীমনির প্রথম বিয়ে হয়। তারা কেউ কাউকে এখনও তালাক দেয়নি। সৌরভ কেশবপুর পৌরসভার সাবেক নারী কাউন্সিলর শাহানা কবির ফতেমার ছেলে। ফতেমার স্বামী জাহাঙ্গির কবিরের পৈত্রিক বাড়ি পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার ভগিরাথপুর গ্রামে। ওই গ্রামেই পরীমনি নানা শামসুদ্দিন গাজীর বাড়িতে থাকতেন । ২০১০ সালে এসএসসি পরীক্ষার পর সৌরভ দাদার বাড়িতে বেড়াতে গেলে সেখানে পরিচয় হয় শামসুন্নাহার স্মৃতি উরফে পরীমনির। তাদের মধ্যে ভালোবাসার সৃষ্টি হয়। ২ বছর প্রেম ভালোবাসার পর তাকে নিয়ে ২০১২ সালের ২৮ এপ্রিল যশোরের কেশবপুর পৌরসভার কাজী এম ইমরান হোসেনের মাধ্যমে ১ লক্ষ্ধসঢ়; টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ে রেজিস্ট্রেশন হয়। যার ক্রমিক নং -৫৭/১২ ভোলিয়াম নং -০১/১২ পৃষ্ঠা নং-৯৭ । বিয়ের পর কেশবপুরে চলছিল তাদের ভালবাসার সংসার। পরে সৌরভ ঢাকায় পি জি এসসি ও বাড্ডা জাগরণী ২টি ক্লাবে ফুটবল খেলার সুবাদে ঢাকায় বনশ্রীীতে একটি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। সেখানে থাকাকালীন সে সময় বাসায় কোন ধরনের লোক আসা যাওয়া করত না। বনশ্রীতে থাকাকালীন ২০১৩ সালে পরীমনি আস্তে আস্তে মিডিয়ার সাথে সম্পৃক্ত হওয়ার পর ঊশৃংখল চলাফেরা শুরু করে। এ নিয়ে দু’জনের মধ্য মনোমালিন্য হয়ে তাদের দুরত্ব তৈরি হতে থাকে। ২০১৪ সাল থেকে তারা আলাদা থাকতে শুরু করে ২০১৫ সালে সৌরভ পরীমনি ছাড়া কেশবপুরে চলে আসে। বর্তমানে তিনি সঙ্গীত চর্চার (শিল্পী)পাশাপাশি কেশবপুরে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত রয়েছেন।

সর্বশেষ ২০১৬ সালে পরিমনির সাথে সৌরবের কথা হয়েছিল তবে তিনি তার সাথে আর থাকতে রাজি হননি। উল্লেখ্য, ৪ আগস্ট (বুধবার) রাজধানীর বনানীর বাসা থেকে আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণিকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এসময় তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক জব্দ করা হয়েছে। এবিষয়ে ফেরদৌস কবির সৌরভের কাছে তার বর্তমান প্রতিক্রিয়া কি তখন তিনি এই প্রতিধিকে জানান আইনের উর্ধ্বে কেউ নয় অপরাধ করলে তাকে তো সাজা ভোগ করতেই হবে।

Previous articleপরীমনি ও হেলেনাসহ ৬ বাসায় একযোগে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে সিআইডি
Next articleবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রীর নের্তৃত্বে রাশিয়ায় রোসাটমের টেকনিক্যাল একাডেমী পরিদর্শন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।