অতুল পাল: পটুয়াখালীর বাউফলের কালিশুরী বন্দরের বহুল আলোচিত সেই খাস জমি হিমু সন্যামত নামের এক প্রভাবশালী দখল করে মুরগির ব্যবসা করছেন।

প্রভাব বিস্তার করে দীর্ঘদিন থেকে ওই খাস জমি ব্যাবসায়িক কাজে ব্যবহৃত হয়ে আসলেও স্থানীয় ভূমি অফিস কোন পদক্ষেপই নিচ্ছেন না।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে কালিশুরী-চাঁদকাঠি খেয়াঘাট এলাকায় খাস খতিয়ানের প্রায় ১২ শতাংশ জমি বিএনপি দলীয় সাবেক এমপি শহীদুল আলম তালুকদার দখলের পর বহুতল ভবন নির্মাণ করেছিলেন। ওয়ান ইলেভেনের সময় যৌথ বাহিনী ওই মার্কেট ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর কালিশুরী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোস্তফা তালুকদারের ডান হাত হিসেবে পরিচিত হিমু সন্যামত সেই খাস জমি দখল করে নেন। জমি দখলের পর তিনি সামনের অংশে পাকা টিন শেড ভবন নির্মাণ করেন। আর পেছনের অংশে মুরগির ব্যবসা করার জন্য কয়েকটি শেড নির্মাণ করেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কালিশুরী বন্দরের একাধিক ব্যবসায়ী জানান, দখল হওয়া ওই খাস জমির বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় ৩ কোটি টাকা। ক্ষমতার প্রভাব বিস্তার করে হিমু সন্যামত ওই জমি দখল করে মুরগির ব্যবসা করছেন। সরেজমিন পরিদর্শনকালে হিমু সন্যামতকে পাওয়া যায়নি। তবে তার ভাই হিরু সন্যামত জমি দখলের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, কিছু জমি আমরা সরকারের কাছ থেকে লিজ নিয়েছি। আর বাকী জমি শুধু শুধু পড়ে থাকায় আমরা ব্যবহার করছি। সরকার চাইলেই আমরা ফেরৎ দিয়ে দেব। কালিশুরী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ নেছার উদ্দিন জামাল সিকদার বলেন, হিমু সন্যামত আওয়ামী লীগের কোন পদে নেই। তার বাড়ি বাকেরগঞ্জ উপজেলায়। যদি কিছু করে থাকেন তা তার ব্যক্তিগত ক্ষমতায় করেছেন। এখানে দলের কোন সম্পৃক্ততা নেই। এ প্রসঙ্গে কালিশুরী ইউনিয়ন ভূমি সহকারি কর্মকর্তা আব্দুর জব্বার আকন বলেন, কালিশুরী বন্দরের খাস খতিয়ানের বেশকিছু জমি বিভিন্ন কৌশলে প্রভাবশালীরা দখল করে রেখেছেন। অনেকে আবার আদালত থেকে একতরফা রায় এনে খাস খতিয়ানের জমি ভোগ দখল করছেন। বেদখল হওয়া খাস জমি উদ্ধারের জন্য শিগগিরই পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

Previous articleমালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী হলেন ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব
Next articleতাহিরপুর পর্যটন এলাকা পরিদর্শনে স্থানীয় সংসদসহ সচিবালয়ের প্রতিনিধি দল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।