শহিদুল ইসলাম: বাংলাদেশী পাসপোর্ট ভারতে পাচারের সময় এক ভারতীয় নাগরিককে আটক করেছে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই)।

সোমবার বিকাল ভারতীয় নাগরিক আজগর আলী একটি ল্যাগেজ নিয়ে বেনাপোল ইমিগ্রেশনের প্রবেশ মুখে সন্দেহবশত তার নিকট জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে বাংলাদেশী ৬টি পাসপোর্ট আছে বলে জানায়। এসময় ওই যাত্রীর সাথে তার শাশুড়ী আফরোজা বেগমসহ ভারতীয় আরো চার জন নাগরিক ছিল। গত এক সপ্তাহ আগে এই আফরোজা ইমিগ্রেশন এর প্রবেশমুখে কাস্টমস শুল্ক গোয়েন্দারা ১৮ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার করে।

আটককৃত আজগর আলী ভারতের ২৪ পরগনা জেলার খিদিরপুর ফেন্সি মার্কেট এলাকায় বলে জানায়।

বেনাপোল এনএসআই এর উপ-পরিচালক ফরহাদ হোসেন বলেন, সন্দেহবশত তাকে জিজ্ঞাসা করলে সে তার কাছে থাকা পাসপোর্টের কথা স্বীকার করে। পাসপোর্ট কে তাকে দিয়েছে বহন করতে এ প্রশ্নে তিনি বলেন, বেনাপোল এলাকার রাসেল নামে একটি ছেলে তাকে এই পাসপোর্টগুলো দিয়েছে বলে জানায়।

আটককৃত আজগর আলী বলেন, আমাকে একজন লোক দিয়েছে ভারতে নিয়ে কুরিয়ার করতে। আমি ভারতে যাওয়ার সময় আমাকে বলে এটা ওপারে নিয়ে একটু কুরিয়ার করে দিও। সে কুরিয়ারের খরচ দিয়ে ব্যাঙ্গালারুর ঠিকানা দিয়ে আমার কাছে দেয়।

এদিকে বেনাপোল চেকপোষ্টে লালন নামে এক ব্যক্তি বলে এই পাসপোর্ট ভারতে গেলে আমাদের দেশের লাভ। ওই দেশে বিভিন্ন দেশের এজেন্ট রয়েছে। সেখান থেকে ভিসা লাগিয়ে বাংলাদেশী যাত্রীদের বিদেশ পাঠানো হয়। এতে সরকারের রেমিটেন্স আসে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি আহসান হাবিব বলেন, একজনের পাসপোর্ট আর একজন বহন করা অপরাধ। আর ভারতীয় নাগরিক তা বহন করে নিয়ে যাচ্ছে। ভারতীয় আজগর হোসেন নামে ওই নাগরিককে বেনাপোল থানায় পাসপোর্টসহ হস্তান্তর করা হবে।

Previous articleপাঁচ মামলায় খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়লো এক বছর
Next articleইমরানকে নিয়ে আবারও সংসার করতে চান সেই জাপানি নারী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।