বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে এক বৃদ্ধকে রশি দিয়ে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। মো. দেলোয়ার হোসেন নামে ওই ব্যক্তি উপজেলার ৫নং গাজির ভিটার ইউপি চেয়ারম্যান।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার বিকেলে উপজেলা সদর ইউনিয়নের মুজাখালি গ্রামের দুলাল মিয়ার জায়গা থেকে মাটি নিয়ে রাস্তার কাজ করেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন। এ সময় দুলাল মিয়া বাধা দিতে গেলে চেয়ারম্যানের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এর একপর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে চেয়ারম্যান দুলালকে তার নিজ গাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের সামনে রশি দিয়ে বেঁধে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেন।

পরে আহত অবস্থায় দুলালকে হালুয়াঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন তার পরিবারের লোকজন। এই ঘটনায় চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে হালুয়াঘাট থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। হালুয়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুজ্জামান খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, ‘বালিচান্দা গ্রামের রাস্তায় কাজ করতে গেলে মাটি উত্তোলনকে কেন্দ্র করে দুলাল মিয়ার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সরকারি কাজে বাধা দেয় দুলাল। আমি তার প্রতিবাদ করলে সে আমার গায়ে হাত তোলে। পরে গ্রাম পুলিশ তাকে ধরে আমার নিজ গাড়িতে তোলে ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে এসে তাকে রশি দিয়ে বেঁধে ফেলে। পরে আমি তাকে মারধর করি। ’

Previous articleড্রেসের সঙ্গে মিলিয়ে জুতা না পরায় শতাধিক শিক্ষার্থীকে ক্লাস থেকে বের করে দিলেন প্রধান শিক্ষক
Next articleসব প্রস্তুতি নেয়া আছে, সুষ্ঠুভাবেই হবে এসএসসি ও এইসএসসি পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।