রেজাউল ইসলাম পলাশ: ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার চাড়াখালী (গুদীঘাটা) এলাকায় মৃত নান্নু মোল্লার বসতঘরে ৩০ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক পৌনে দুইটায় ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।

ডাকাতরা ঘরে প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে ঘরের লোকদের জিম্মি করে ঘরে রক্ষিত নগদ অর্থ ও ৩ ভরি ওজনের স্বর্নালংকার মোবাইল সহ মালামাল নিয়ে যায়। খবর পেয়ে রাজাপুর থানা ও জেলা পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। মৃত নান্নু মোল্লার স্ত্রী নিরু বেগম জানান, রাত আনুমানিক পৌনে ২টার দিকে আমার বসতবাড়ির পিছনের দরজা ভেঙ্গে মুখোশধারী একদল ডাকাত দেশীয় অস্ত্র নিযে ঘরে প্রবেশ করে আমার পুত্র আলমগীরকে মারধর করে ফুলা জখম ও আমাকে রামদা দিয়ে পিটিয়ে আহত করে এবং আমার ২ পুত্রবধু, (তিনটি শিশু) সহ ৭ জনকে হাত-পা বেধেঁ ঘরের একটি কক্ষে আটকে রাখে, এ সময় আমার ও আমার পুত্র বধুদের পরিহিত ৬ টি আংটি ও কানে থাকা তিন জোড়া রিং ও বিভিন্ন আলমিরা ভেঙ্গে নগদ আনুমানিক ৮৫ হাজার টাকা সহ একটি মোবাইল সেট ছিনিয়ে নিয়ে যায়। অন্যান্য মোবাইলগুলো পানিতে ডুবিয়ে দেয়।

তিনি আরও বলেন পুত্র আলম মোল্লা কুয়েত প্রবাসী এবং অন্য ২ পুত্র ঢাকায চাকুরি করে এবং ১ পুত্র বাড়িতে থাকে। ঘটনার সময় সাম্প্রতিক দেশে ফেরা প্রবাসী পুত্র পরিবার সহ ভান্ডারিয়ায় অবস্থান করছিলেন। ডাকাতি চলাকালে গ্রামবাসী টের পেয়ে মসজিদে মাইকে ডাকাতির ঘোষনা দেয়। মাইকের ঘোষনা শুনে গ্রামের লোকজন চারদিক থেকে ডাকাতদলকে ধাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়। রাজাপুর থানার ডিউটি অফিসার সাব ইন্সপেক্টর মোঃ খোকন বলেন একটি দস্যুতার ঘটনা ঘটেছে। আমাদের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

Previous articleবেসরকারি স্কুল-কলেজে এমপিওভুক্তির গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ট্রাক শ্রমিকের মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।