বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাজধানীর উত্তর শাহজাহানপুর এলাকার একটি বাসায় অর্পা হাসান (২০) নামে এক কলেজছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার (৯ অক্টোবর) দুপুর ১২ টার দিকে উত্তর শাহজাহানপুর আমতলা মসজিদ সংলগ্ন ৩৭৯ নম্বর বাসায় এই ঘটনা ঘটে। অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দুপুর দেড়টায় মৃত ঘোষণা করেন।

নোয়াখালী চাটখিল উপজেলার হাসান ইমামের মেয়ে অর্পা। গত দুবছর আগে বাবা-মায়ের মধ্যে তালাক হয়ে গেলে সে মা রুপা আহমেদের সাথে থাকত।

তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া মা রুপা আহমেদ জানান, তেজগাঁও ন্যাশনাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের কম্পিউটার সাইন্স বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্রী ছিল সে।

আজ দুপুর ১২টার কিছু সময় আগে তিনি বাজার করতে বাইরে যান। একটু পর বাসায় ফিরে অর্পার রুমের দরজা ভিতর থেকে বন্ধ দেখতে পান। তখন তাকে ডাকাডাকি করেও কোনো সাড়াশব্দ পাননি।

পরে রুমের দরজা ভেঙে তাকে ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেওয়া দেখতে পান বলে দাবি করেন তিনি। তখন তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় আল বারাকা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি দেখে নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকা মেডিকেলে। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, গত তিনমাস আগেও সে ২০টি ঘুমের ট্যাবলেট খেয়ে আইসিইউতে ভর্তি ছিল। সবশেষ গত পরশুদিনও সে আবারও ঘুমের ওষুধ খায়। তখন তাকে ঢাকা মেডিকেল থেকে স্টোমাক ওয়াশ করানো হয়েছিল। সে খুব রাগী ও জেদি ছিল। কী কারণে এমন ঘটনা ঘটাত, সে বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি মা রুপা।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী ইনচার্জ (এএসআই) আব্দুল খান মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাটি শাহজাহানপুর থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে। মৃতদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

Previous articleদেশে করোনায় আগের দিনের চাইতে মৃত্যু প্রায় ৩ গুণ
Next articleকোম্পানীগঞ্জে বিএনপির কমিটির বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল, আহ্বায়ককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।