বাংলাদেশ প্রতিবেদক: সিরাজগঞ্জ মহকুমার মুক্তযুদ্ধকালীন প্রশাসক (বেসরকারি) ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ইসমাইল হোসেনের নাম নেই জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) তালিকায়। ৭৪ বছর বয়সে এসে জামুকার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে সাংবাদিকদের দ্বারস্থ হলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ইসমাইল হোসেন।

সোমবার বিকেলে সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সন্মেলনে জামুকার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে প্রধানমন্ত্রী ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানান তিনি।

শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি গাজী ইসহাক আলীর সঞ্চালনায় এবং প্রেস ক্লাব সভাপতি হেলাল আহম্মেদের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ইসমাইল হোসেনের সহযোদ্ধা ও রনাঙ্গনের সাথী জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট কে এম হোসেন আলী হাসান, সিনিয়র সহ-সভাপতি চেম্বার প্রেসিডেন্ট আবু ইউসুফ সূর্য্য, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট বিমল কুমার দাস, গাজী সোহরাব আলী সিএনসি, গাজী আমিনুল ইসলাম, গাজী জহুরুল ইসলাম, গাজী শফিকুল ইসলাম শফি, গাজী জগলু চৌধুরী এবং জেলা গণহত্যা অনুসন্ধান কমিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মেয়র সৈয়দ আব্দুর রউফ মুক্তা বলেন, ‘বেসরকারিভাবে মহকুমা প্রশাসক (এসডিও) হিসেবেখ্যাত ইসমাইল ভাইয়ের নাম জামুকা তালিকায় নেই- এটি ভাবতেই নিজেদের অপরাধী মনে হয়।’

সাবেক জেলা কমান্ডার গাজী শফিকুল ইসলাম শফি বলেন, ‘ইসমাইল ভাইয়ের অনুপ্রেরণা ও নেতৃত্বে শত শত বীরমুক্তিযোদ্ধা সিরাজগঞ্জের শৈলাবাড়িসহ বিভিন্ন স্থানে পাকহানাদার বাহিনীর সঙ্গে সন্মুখ যুদ্ধে অংশ নেন। স্বাধীনতার পর আমেরিকাপ্রবাসী হলেও আমরাতো দেশেই ছিলাম। সহযোদ্ধাদের সমন্বয়হীনতার কারণে তার নাম আজ পর্যন্ত জামুকায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি। তার নাম জামুকার তালিকায় সংযুক্ত করতে সহযোদ্ধা হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর কাছে আমরা জোর দাবি জানাচ্ছি।’

Previous articleপীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনায় আরও ৩ জন গ্রেফতার
Next articleটাঙ্গাইলে প্রার্থীর মৃত্যুতে চেয়ারম্যান পদের নির্বাচন স্থগিত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।