বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার মৃত বারেক গাজী (৬২) নামে এক কৃষকের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য প্রায় দুই মাস পর কবর থেকে উত্তোলন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

বুধবার পিরোজপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ খাইরুল ইসলাম চৌধুরীর উপস্থিতিতে লাশটি ওঠানো হয়। এ সময় মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা: প্রীতম কুমার পাইক ও পিরোজপুর পিবিআই-এর পরিদর্শক আহসান কবির উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, গত ২৯ আগস্ট সকাল ১১টার দিকে উপজেলার ভাইজোড়া গ্রামের মৃত শের আলীর ছেলে কৃষক বারেক গাজী নিজ জমিতে ইরি ধানের বীজ রোপন করেন। ওই দিন বিকেলে কে বা কারা প্রতিবেশী মৃত ওয়াজেদ আলী হাওলাদারের ছেলে প্রভাবশালী ইউনুস হাওলাদারের দুই গোছা বীজ চুরি করে নিয়ে যায়। এতে ইউনুস হাওলাদার বারেক গাজীকে সন্দেহ করেন। এক পর্যায়ে কৃষক বারেক গাজীকে সন্ধ্যায় তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে বীজ চুরির অপবাদ দিয়ে মারধর করলে ঘটনাস্থলেই বারেক গাজী মারা যান।

ইউনুস হাওলাদার স্ট্রোক করে বারেক গাজী মারা যান বলে প্রচার করেন। পরে ময়নাতদন্ত ছাড়াই কৃষক বারেক গাজীর পরিবারকে চাপ প্রয়োগ করে মৃতের দাফন সম্পন্ন করেন তিনি।

এ ঘটনায় কৃষক বারেক গাজীর আপন ভাই আ: হালিম গাজী ৬ সেপ্টেম্বর মঠবাড়িয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যার অভিযোগ এনে ইউনুস হাওলাদারকে (৫৫) আসামি করে একটি মামলা করেন। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন।

Previous articleইংল্যান্ডের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
Next articleপ্রধানমন্ত্রীর ঘর-শিশুপার্ক পেয়ে আনন্দিত মেঘনা পাড়ের ভূমিহীন পরিবার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।