ফেরদৌস সিহানুক শান্ত: চাঁপাইনবাবগঞ্জে মহানন্দা নদীতে এক জেলের জালে ধরা পড়েছে ৪০ কেজির বাঘাইড় মাছ। রবিবার ভোররাত ৩টার দিকে (২১ নভেম্বর) চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার খালঘাটের উত্তর পাড়ে মাছটি ধরা পড়ে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার আলীনগর ভূতপুকুর মহল্লার নাসির হালদার ও তার ভাই জাইনুদ্দিন হালদারের জালে এ মাছটি পাওয়া যায়। সোমবার (২২ নভেম্বর) সকাল আটটার দিকে নিউমার্কেট মাছপট্টিতে ৯০০ টাকা কেজি দরে মাছটি বিক্রি করে তারা।

জেলে, প্রত্যক্ষদর্শী ও ব্যবসায়ী সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে নিউমার্কেট মাছপট্টির মকবুল ফিস ট্রেডার্সে ৩৫ কেজি ওজন ধরে বিক্রি করে নাসির হালদার। এতে তারা দাম পায় ৩১ হাজার ৫০০ টাকা। বাঘাইড় মাছ ছাড়াও সাড়ে ৩ কেজি ওজনের একটি কাতলা মাছ উঠে একই জালে। কাতলা মাছটি ৩১৫ টাকা কেজি দরে আড়তে বিক্রি হয়। জানা যায়, পরে মাছটি ১১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে।
জেলে নাসির হালদার বলেন, গত ১৯ বছর ধরে মহানন্দা নদীতে মাছ ধরি। দুই দশকের মধ্যে এতোবড় মাচ আর একবারই পেয়েছিলাম। প্রায় ৩ বছর আগে ঠিক একই ওজনের বাঘাইড় মাছ মহানন্দা নদীর একই জায়গা থেকে পেয়েছিলাম। আজ রাতে পাওয়া মাছটির প্রকৃত ওজন ৪০ কেজি হলে আড়তে পাঁকা ওজন ৩৫ কেজি হিসেবে বিক্রি করেছি।

নাসির হালদারের ছেলে খালেক হালদার জানান, আমরা গতকাল রাত আড়াইটার দিকে জাল ছাড়ি। সাধারণত একবার জাল ফেললে দেড় ঘন্টা সময় লাগে জাল উঠাতে। কিন্তু কাল জাল ফেলার আধা ঘণ্টার মধ্যেই মাছটি জালে ধরা পড়ে। সাধারণত এতোবড় মাছ এসব জালে খুব কম ধরা পড়ে। কারন জাল থেকে পালিয়ে যায়। কিন্তু এই বাঘাইড় মাছটির কাটা জালে আটকে গেছিলো। আর আমরা ব্যাপারটা বুঝতে পেরে আধা ঘণ্টায় জাল তুলেছিলাম। আমি, বাবা, চাচা মিলে মোট ১৩ জন লোক মাছ ধরার কাজে ছিলাম বলে জানান তিনি।

মকবুল ফিস ট্রেডার্সের প্রোপাইটর মোজাম্মেল হক জানান, জেলেরা মাছটি ৯০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেছিল। পরে মাছটি কেটে কেটে ১১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে।

Previous articleসৌদি প্রবাসী বড় ভাইয়ের এসএসসি’র প্রক্সি দিচ্ছে ছোট ভাই, অতঃপর …
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।