স্বপন কুমার কুন্ডু: ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে ঈশ্বরদীতে তাপমাত্রা কমেছে ৩.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সোমবার (২০ ডিসেম্বর) ঈশ্বরদীর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এরআগে রোববার (১৯ ডিসেম্বর) তাপমাত্রা ছিল ১২ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঈশ্বরদী আবহাওয়া অধিদফতরের পর্যবেক্ষক নাজমুল হক রঞ্জন এই তথ্য জানিয়েছেন।

নাজমুল আরও জানান, পৌষের শুরুতে শীত পড়তে শুরু করেছে। তাপমাত্রা ধীরে ধীরে কমে শীতের তীব্রতা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। চলতি শীত মৌসুমে এটিই ঈশ্বরদীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। আবহাওয়া অফিস এই অবস্থাকে মৃদু শৈত্য প্রবাহ বলে ব্যাখ্যা দিয়েছেন।

রবিবার সন্ধ্যার পর হতেই শীতের তীব্রতা বাড়তে থাকে। হঠাৎ করে তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় ঈশ্বরদীসহ আশেপাশের এলাকায় শীত জেঁকে বসেছে। উত্তরের হিমেল হাওয়া বইছে। হিমেল বাতাসের কারণে ঘরের বাইরে কনকনে ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। শীত নিবারণের জন্য রেলওয়ের পুরাতন কাপড়ের মার্কেটে শীতবস্ত্র কিনতে নিম্নআয়ের লোকজন হুমড়ি খেয়ে পড়েছে।

পদ্মা নদী তীরবর্তি ও ছিন্নমূল মানুষগুলো হাড় কাঁপানো শীতে নাজেহাল হয়ে পড়েছে। সকাল ও সন্ধ্যার পর মানুষগুলো পথের ধারে খড়-কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের প্রচেষ্টা করছে। রবিবার গভীর রাতে ঈশ্বরদী জংসন ষ্টেশনে শীতে কাতর ভাসমান ও ছিন্নমূল মানুষদের অবর্ণনীয়ভাবে রাত্রি যাপন করতে দেখা গেছে।

এদিকে ঈশ্বরদী হাসপাতালের পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের শিশু চিকিৎসক ডা: আব্দুল বাতেন জানান, শিশুরা কোল্ড ডায়ারিয়ায় বেশী আক্রান্ত হচ্ছে। এছাড়া বৃদ্ধরা শ্বাসকষ্ট, নিউমোনিয়া, হৃদরোগ, অ্যাজমাসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালের স্মরণাপন্ন হচ্ছেন।

Previous articleকালিহাতীতে জলাতঙ্ক নির্মূলে কুকুরের টিকাদান কার্যক্রমের অবহিতকরণ
Next articleরমেক হাসপাতালে আগুন: তৃতীয় তলার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে আগুনে জ্বলে পুড়ে গেছে আসবাবপত্র
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।