বাংলাদেশ প্রতিবেদক: সেনবাগ উপজেলার ৪নং কাদরা ইউনিয়নের মগুয়া মিজি বাড়ীতে সম্পত্তি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক বীর মুক্তিযোদ্ধা ও অবঃপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আবু তাহের, স্ত্রী হাসিনা বেগম (৫৫) এলোপাথাড়ী পিটিয়ে আহত এবং কন্যা গ্রীস প্রবাসীর স্ত্রী রোকসানা আক্তার (২৫) কে গলায় ওড়না পেঁছিয়ে শ্বাসরোধ হত্যা চেষ্টার চালিয়েছে একই বাড়ির আবুল খায়েরের ছেলে আবদুল্লাহ আল মামুন (৩৫), আবু নাছের (৪০) ও তার স্ত্রী সুমি আক্তার (৩০)।

এসময় হামলাকারীরা গ্রীস প্রবাসী মোঃ ইব্রাহিমের স্ত্রী রোকসানার গলার চেইন, কানের দুল ও হাতের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ওই হামলার ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বেলা ১১টার দিকে। সময় হামলার শিকার মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সদস্যদের আত্মচিৎকারে আশেপাশ্বের লোকজন এগিয়ে এসে তাদেরকে উদ্ধার করে সেনবাগ উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে তারা আহত মুক্তিযোদ্ধা,তার স্ত্রী ও কন্যাকে হাসপাতালে ভর্তিতে বাঁধা দেয় ও হামলার চেষ্টা চালায়।

হাসপাতালে চিকিৎসার্ধীন রোকসানাআক্তার অভিযোগ করে জানান প্রতিপক্ষ আবদুল্লাহ আল মামুন, আবু নাছের ও তার স্ত্রী সুমি আক্তার বিভিন্ন তার ক্রয়কৃত দুই শতাংশ জমিন দখল করতে না পেয়ে নানা অজুহাতে ঝড়গা বিবাদ সৃষ্টি চেষ্টা চালায়। ঘটনাদিন তারা বিনা কারনে তাদের বসতঘর লক্ষ করে ময়লা ফেলায় বাঁধা দেয় এই নিয়ে তাদের পরিবারের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এর প্রতিকার চেয়ে রোকসানা আক্তার বাদী হয়ে সেনবাগ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

সেনবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ইমদাদুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। তদন্ত শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Previous articleসোনারগাঁওয়ে স্ট্যান্ড দখল ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আ’লীগের দু’পক্ষে গোলাগুলি, আহত ১২
Next articleজয়পুরহাটে সুষ্ঠ নির্বাচনের দাবিতে জাতীয় পার্টির সংবাদ সন্মেলন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।