মোঃ জালাল উদ্দিন: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার বড়ভাকৈর ইউনিয়ন (পূর্ব) ইউনিয়নে বাড়ির পাশে আমন জমি থেকে হাত-মুখ বাঁধা অবস্থায় এক তরুণীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ। তার নাম জুবা বেগম (১৭)। সে নবীগঞ্জ উপজেলার বড়ভাকৈর (পূর্ব) ইউনিয়নের বাগাউড়া গ্রামের মোঃ সুফু মিয়া’র মেয়ে।

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় এলাকায় বসবাসকারীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে এবং এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে৷

সোমবার (২৭ ডিসেম্বর ২০২১ইং) রাতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জুবার ছোট বোন নিলুপা জানান, রাতের খাবার খেয়ে আমি ও জুবা আপু দুজন মিলে মোবাইলের মধ্যে একটি সিনেমা দেখে রাত আনুমানিক ১১টার সময় আমরা ঘুমিয়ে পড়ি। সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে আমি বের হয়ে আসি তখনও জানতাম না আমার বোন এই বর্বরতা ও খুনের শিকার হয়েছে। সে বাগাউড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত লেখা পড়া করে বাবার আর্থিক অস্বচ্ছতার কারণে করোনা কালীন সময়ে লেখা পড়া বন্ধ করে দেন।

আরও বলেন, একটি ছেলে মাঝে মধ্যে হুমকি ধামকি দিয়ে থাকতো আপু কে।

মেয়ের বাবা জানান, আমি কাউকে দেখিনি সকাল ৭ টা থেকে মেয়েকে পাওয়া যাচ্ছে না। আমি ভোর বেলাতেই জমিতে কাজ করার জন্য চলে যাই এখন আমি শুনে এসেছি বাড়িতে। আরও বলেন,বাড়ির পাশে আমন জমিতে মানুষের ভীড় দেখে আমার ছোট মেয়ে নিলুপাও সেখানে যায় গিয়ে দেখে তার বোনের লাশ।

প্রেম ঘটিত ঘটনায় তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। হত্যার পর মেয়ের মোবাইল পাওয়া যায়নি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ডালিম আহমেদ জানান, ঘটনাস্থলে একটি ব্লেড, মদের বোতল ও জুতা পাওয়া যায় প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে যে এই ব্লেড দিয়েই গলা কাটা হয়।

লাশের ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর হত্যাকাণ্ডের কারণ জানা যাবে। মামলার প্রস্তুতি চলছে। এখনো কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

Previous articleওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ১১ কেজি স্বর্ণ আটক
Next articleলক্ষ্মীপুরে ১৫ ইউপির ৬টিতে নৌকার জয়
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।