বাংলাদেশ প্রতিবেদক: কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে চান্দপুর ইউনিয়নের চান্দপুর পূর্ব পাড়া ও মদিনাচ পাড়া গ্রামে অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়ে ১৭ গরুর মৃত্যু হয়েছে। হঠাৎ করে গরু মৃত্যুর ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন এলাকার লোকজন। অজানা এ রোগে প্রতিদিনিই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা।

জানা গেছে, গত কয়েকদিনে চান্দুপুর পূর্বপাড়া গ্রামের জজ মিয়ার ৩টি, রমজান মিয়া ৩টি, আ: বারিকের ২টি, মস্তোফার ২টি, আব্দুল হাইয়ের ২টি, রতন মিয়া, গোলাপ মিয়া, মনির মিয়া, আব্দুল আজিজ ও মদিনাচ পাড়ার ইয়াছিন মিয়ার ১টি করে গরু মারা যায়।

এছাড়াও হারুন, সাদ্দাম, তাহের, মনির, লিটনসহ অনেকের গরু অসুস্থ রয়েছে।

চান্দপুর ইউনিয়নে অজ্ঞাত রোগে গরুর মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রাণিসম্পদ অফিস ও হাসপাতালের ডা: জালাল উদ্দিনের নেতৃত্বে তিন সদস্য ও কটিয়াদী উপজেলা ভ্যাটেনারি সার্জন ডা: নাছির উদ্দিন মুন্সির নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন, মৃত ও আক্রান্ত গরুর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করেছেন।

উপজেলা ডেইরি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন জানান, গরু মারা যাওয়ার আগে মুখ দিয়ে লালা ঝরতে থাকে। আক্রান্ত গরু কোনো খাবার খায় না এবং গরুর মুখ মাটিতে লাগিয়ে ঘষতে থাকে। এক পর্যায়ে আক্রান্ত গরু নিস্তেজ হয়ে মারা যায়।

উপজেলা ভেটেরিনারি সার্জন ডা: মো: নাসির উদ্দিন মুন্সী জানান, গরুগুলো মারা যাওয়ার কারণ এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। জেলা ও উপজেলার প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের একটি টিম উক্ত এলাকায় গিয়ে আক্রান্ত গরুর নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। নমুনা রিপোর্টের ফলাফল পাওয়া গেলে গরু মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

Previous articleরংপুরে করোনার বুস্টার ডোজ টিকা প্রদান শুরু
Next articleঢাবিতে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আহত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।