বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের গলাইকুড়া গ্রামে রাবেয়া বেগম (৬০) নামে এক নারীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে তার সতিনের ছেলে শাহিন (২০)।

শুক্রবার বেলা ১টার দিকে গ্রামের গবরার মোড়ে নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাবেয়া বেগম ওই গ্রামের ইসরাইলের স্ত্রী। শাহিনকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সদর ইউনিয়নের গলাইকুড়া গ্রামের ইসরাইলের আগের স্ত্রীর ছেলে শাহিন বাবা ও সৎ মায়ের সাথে এক বাড়িতে বসবাস করছিল। শুক্রবার ইসরাইল জুম্মার নামাজ পড়ার জন্য মসজিদে গেলে ছেলে শাহিন মোটরের সুইচ অন করাকে কেন্দ্র করে সৎ মায়ের সাথে ঝগড়া শুরু করেন। এক পর্যায়ে ছেলে শাহিন দা দিয়ে সৎমা রাবেয়া বেগমের মাথায় একাধিক আঘাত করে। এতে রাবেয়া বেগম রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তখন শাহিন মাকে জবাই করে।

ঘটনাটি স্থানীয়রা জানতে পেরে সাথে সাথে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং ঘাতক ছেলে শাহিনকে আটক করে।

নিয়ামতপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ বজলুর রহমান বলেন, ‘আমি সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে এসে লাশ রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকতে দেখি।’

নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হুমায়ন কবির বলেন, শাহিন নিহত রাবেয়া বেগমের সতিনের ছেলে। কী কারণে মাকে হত্যা করলো তা এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। তদন্ত করলে জানা যাবে। এ ঘটনায় মামলা হবে বলেও জানান তিনি।

Previous articleআপত্তিকর ভিডিও ফাঁস: সিআইপি লিটনের আজীবন বহিষ্কার চায় রাজাপুর আ’লীগ
Next articleকমলগঞ্জে চা বাগানের ছড়া থেকে মৃগী রোগীর লাশ উদ্ধার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।