আবুল কালাম আজাদ: কুড়িগ্রামের উলিপুরে একই জমিতে ধান ও মাছ চাষ করে সাফল্যের সম্ভাবনা দেখছেন একজন আদর্শ ও সাফল্য কৃষক।

শুক্রবার (১ এপ্রিল) উপজেলার থেতরাই ইউনিয়নের হারুনেফড়া সরকার পাড়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায় একই জমিতে ধান ও মাছের চাষ করেছেন একজন আদর্শ ও সাফল্য কৃষক জনাব মোঃ আশরাফ আলী খন্দকার। জানা যায়, তার বাড়ির সামনে পুকুর সংলগ্ন ৮৬ শতক জমিতে ধান লাগিয়েছেন যা গত বছরের তুলনায় অনেক ভালো হয়েছে। আবার ঐ জমিতে মাছের চাষ করা হয়েছে। এবার মাছও ভালোই বৃধি পেয়েছে।

উক্ত আদর্শ কৃষক বলেন, আমি প্রতি বছর একই জমিতে ধান ও মাছের চাষ করি। এবং সফলতা অর্জন করি। তবে গত বছরের তুলনায় এবার ধান ও মাছ চাষ দুটোই ভালো হয়েছে। এবার মাছের পোনা কিনতে হয়েছে চরা দামে। গত বছর আমার এই ৮৫ শতক জমিতে ধান হয়েছে প্রায় ৫০ মন। উক্ত জমিতে মাছের পোনা দিয়েছিলাম প্রায় ৫ মন। যার মূল্য ছিলো প্রায় ২১,০০০ টাকা। সেখানে আমার মাছ বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে প্রায় ১৮ মন যার মূল্য পেয়েছি প্রায় ১,২০,০০০ থেকে ১,২৫,০০০ টাকা। তিনি আরও বলেন আমাকে যদি উপজেলা মৎস অফিস থেকে মাছের পোনা এবং কৃষি অফিস থেকে ভালো জাতের ধানের বীজ দিত তা হলে আরও অনেক সফলতা পেতাম। তিনি বলেন আমার উক্ত জমিতে এবার মাছের পোনা দিয়েছি প্রায় ৬ থেকে ৭ মন। মাছের পোনার দাম বেশি হওয়ায় জমিতে মাছের পোনা বেশি ছাড়তে পারিনি।

এ বিষয়ে উপজেলা মৎস অফিসার জনাব মোঃ তারিফুর রহমান সরকার বলেন একই জমিতে ধান ও মাছ চাষ ভালো হয়। এতে করে কৃষক অনেক লাভবান হন। তবে যে সকল কৃষক একই জমিতে দুটোই চাষ করেন তারা আমাদের উপজেলা মৎস অফিসে যোগাযোগ করলে আমরা বিভিন্ন ধরনের পরামর্শ দেই এবং মাছের রোগ বালাই সম্পর্কে অবগত করি। যাতে মাছ অতি তারাতারি বৃদ্ধি পায়।

এ বিষয়ে উপজেলার কৃষি অফিসের উপ-সহকারী জনাব মোস্তফা কামাল বলেন, একই জমিতে ধান ও মাছ চাষ করা ভালো। এতে করে অনেক লাভ হয়। এ ধরনের ধান চাষিদের আমরা বিভিন্ন ধরনের ধানের রোগ বালাই সম্পর্কে অবগত করি। যাতে করে ধানের কোন ধরনের বালাই না আসে। এবং ফলন ভালো হয়।”

Previous articleঅতীতে ভিক্ষার ওপর নির্ভর করত দেশের উন্নয়ন বাজেট: আইনমন্ত্রী
Next articleলঙ্গরখানা দিয়ে দেশ চলতে পারে না: আলাল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।